মুসলিম জাহান

‘ইসলামিক পার্সোনালিটি অফ দ্যা এয়ার’ এওয়ার্ড পেলেন ডা. যাকির নায়েক

দুবাই আন্তর্জাতিক কুরআন এওয়ার্ড (ডিআইএইচকিউএ) ২০১৩ সালে ‘ইসলামিক পার্সোনালিটি অফ দ্যা এয়ার’ এওয়ার্ডের জন্য সারাবিশ্বে আলোড়ন সৃষ্টিকারী বাগ্মী ও পিস টিভি’র প্রতিষ্ঠাতা ডা. যাকির নায়েককে নির্বাচন করেছে। গত ২৯ জুলাই দুবাইয়ের প্রধানমন্ত্রী মুহাম্মাদ রশীদ আল-মাকতূমের হাত থেকে এর সম্মাননা ক্রেস্ট এবং ২,১২,৩৬০,৪৬ টাকা গ্রহণ করেন। ৪৮ বছর বয়স্ক ডা. যাকির এ এওয়ার্ড লাভের ক্ষেত্রে ১৭তম ব্যক্তি হিসাবে এবং মাওলানা আবুল হাসান আলী নাদভীর পর ২য় ইন্ডিয়ান হিসাবে এ সম্মাননা লাভ করলেন। পুরস্কার গ্রহণের পর ডা. যাকির বলেন, ‘এটা আমার জীবনে সর্ববৃহৎ সম্মাননা। আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, পুরস্কারের সমুদয় অর্থ দিয়ে ‘পিস টিভি’র জন্য একটি ওয়াকফ ফান্ড গঠন করব। যাতে পিস টিভি স্বয়ংসম্পূর্ণভাবে চলতে পারে’।

বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ ডাক্তার একজন ফিলিস্তীনী নারী

ফিলিস্তীনী মুসলিম মহিলা ডাক্তার ইকবাল মুহাম্মাদ আসাদ ২০ বছর বয়সে মেডিক্যাল কোর্স শেষ করে বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ ডাক্তার হিসাবে দ্বিতীয়বারের মত গীনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নিজের নাম লিখিয়েছেন। এর আগে ১৩ বছর বয়সে উচ্চ মাধ্যমিক কোর্স সম্পন্ন করে তিনি রেকর্ড গড়েন। এই মুসলিম নারী সফলতার সাথে কাতারের ওয়েল করনেল মেডিক্যাল কলেজ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ শেষ করে প্রমাণ করেছেন যে, ফিলিস্তীনের মেয়েরা শুধু ক্রন্দন আর নির্যাতনের মধ্যেই নেই। বরং অতি বিরূপ পরিবেশেও তারা অসাধারণ সাফল্য অর্জন করতে পারে।

হজ্জ মৌসুমের আগে মক্কা-মদীনায় মেট্রো রেল

সঊদী সরকার জানিয়েছে, চলতি বছরের হজ্জ মেŠসুম শুরু হওয়ার আগে মক্কা ও মদীনায় মেট্রো রেল চালু করা হবে। পবিত্র হজ্জ মৌসুমে হাজীদের প্রচন্ড ভিড় নিয়ন্ত্রণ ও তাদের যাতায়াতের সুবিধার্থে মক্কা ও মদীনায় মেট্রো রেল চালু করা হচ্ছে। হাজীরা এ বছর থেকে মক্কা ও মদীনা যাতায়াতের ক্ষেত্রে এ আধুনিক সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। মক্কা ও মদীনার মেট্রো রেল লাইন প্রকল্প বাস্তবায়নের নিমিত্তে ১,৬৫০ কোটি ডলার বাজেট বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

সঊদী আরবের হজ্জ মন্ত্রণালয়ের প্রদত্ত তথ্য অনুযায়ী চলতি বছর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ২৭ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসলমান পবিত্র হজ্জ পালনের নিমিত্তে মক্কা ও মদীনা গমন করবেন। এই রেল সার্ভিস চালু হ’লে পবিত্র নগরী মক্কা থেকে মদীনা মুনাওয়ারায় মসজিদে নববী পর্যন্ত ভ্রমণে সময় লাগবে মাত্র ৩০ মিনিট। আগে যেখানে বাসে এপথ অতিক্রম করতে সময় লাগত ৫ থেকে ৬ ঘণ্টা। এছাড়া কর্মকর্তাদের হিসাব মতে এই ট্রেন চালুর ফলে নগরী দু’টির ব্যস্ততম সড়কগুলো থেকে প্রায় ৫৩ হাযার বাস চলাচল কমে যাবে। ঘণ্টায় ২৩০ মাইল গতিসম্পন্ন দ্রুততম এ ট্রেনে ১২টি বগি সংযুক্ত থাকবে এবং প্রতিটি বগিতে ২৫০ জন হজ্জযাত্রী ভ্রমণ করতে পারবেন। ট্রেনটি প্রতি ঘণ্টায় ৭২ হাযার হজ্জযাত্রীকে পরিবহণ করতে পারবে।

১ কেজি ওযন কমালেই মিলবে ১ গ্রাম সোনা

জনসাধারণের মুটিয়ে যাওয়া রোধে পবিত্র রামাযান মাসে ‘সোনার দামে আপনার ওযন’ শিরোনামে পুরস্কার দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুবাই সরকার। সরকারের এ পরিকল্পনা অনুযায়ী শরীরের বাড়তি মেদ কমালে স্বর্ণ দেয়া হবে। এই প্রতিযোগিতায় বিজয়ী প্রথম তিনজন পাবে চার লাখ বত্রিশ হাযার টাকা সমপরিমাণ সোনার কয়েন। দুবাইয়ের অধিকাংশ ছায়েম সারাদিন উপোষ থাকার পর সন্ধ্যায় ইফতারীর সময় অতিরিক্ত পানাহার করে। এতে সংযমের এই মাসটিতে তাদের ওযন না কমে আরো বেড়ে যায়। বছরের অন্যান্য মাসে তারা দৈনিক যত ক্যালরী গ্রহণ করে রামাযানে চিনি ও চর্বিযুক্ত খাবার খেয়ে তারা চেয়ে বেশি ক্যালরী গ্রহণ করে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রধান বাণিজ্য কেন্দ্র দুবাই ছাড়াও প্রতিবেশী দেশগুলোও নাগরিকদের অস্বাভাবিক ওযন নিয়ন্ত্রণে কোটি কোটি অর্থ ব্যয় করছে।

কার্পেটে ঘুমানো প্রেসিডেন্ট আহমাদিনেজাদের বিদায়

ইরানের সপ্তম প্রেসিডেন্ট রূহানী

ইরানের সপ্তম প্রেসিডেন্ট হিসাবে হাসান রূহানী গত ৩ আগস্ট সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনীর মাধ্যমে সাবেক প্রেসিডেন্ট আহমাদিনেজাদের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন। এর মাধ্যমে পরপর দুই মেয়াদে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট আহমাদিনেজাদের অধ্যায় শেষ হ’ল। পেশায় শিক্ষক আহমাদিনেজাদ রাজনীতিতে আসেন ১৯৭৯ সালে ইরানে ইসলামী বিপ্লবের পরপরই। ২০০৩ সালে দু’বছর তেহরানের মেয়র থাকার পর জনগণের বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন ইরানের প্রেসিডেন্ট। প্রেসিডেন্ট হওয়ার পরপরই তিনি তার অফিসে যুগান্তকারী পরিবর্তন আনেন। প্রেসিডেন্ট ভবনের দরজা-জানালা খুলে দেয়া হয় সাধারণের জন্য। প্রেসিডেন্ট অফিসে সপ্তায় পাঁচ দিন সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত সাধারণ ইরানীদের চিঠি গ্রহণের ব্যবস্থা করা হয়। প্রেসিডেন্ট হয়েও আহমাদিনেজাদের জীবনযাপন ছিল একেবারেই সাধারণ। প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েই প্রেসিডেন্ট ভবনের দামী কার্পেটগুলো তেহরানের মসজিদে দান করে দেন। এর পরিবর্তে সাধারণ মানের কার্পেট বিছানো হয় প্রেসিডেন্ট ভবনে। প্রেসিডেন্ট ভবনের ভিআইপি অতিথিশালাও বন্ধ করে দেয়া হয়। একটি সাধারণ ঘরেই ভিআইপিদের সঙ্গে বৈঠকের ব্যবস্থা রাখা হয়। রাতে ঘুমানোর সময় প্রেসিডেন্ট হয়ে যেতেন আরও সাধারণ। মেঝেতে বিছানো কমদামী কার্পেটেই ঘুমাতেন তিনি। সকালে অফিসে আসার সময় একটি সাধারণ ব্যাগে করে স্ত্রীর তৈরী করে দেয়া খাবার নিয়ে আসতেন আহমাদিনেজাদ। প্রেসিডেন্টের জন্য আলাদা বিমান পরিসেবার ব্যবস্থা থাকলেও তা তিনি পরিণত করেন সাধারণ কার্গো বিমানে।

প্রেসিডেন্ট পদ থেকে বিদায় নেয়ার আগেও ইতিহাস তৈরী করে গেছেন আহমাদিনেজাদ। গত আট বছরে অর্জিত সম্পদের হিসাব দিয়ে যান তিনি। যে হিসাবে দেখা যায়, ২০০৫ সালে প্রেসিডেন্ট হিসাবে দায়িত্ব নেয়ার পর তার সম্পদে যে পরিবর্তন এসেছে, তা হ’ল- তিনি তার পুরাতন বাড়িটি পুনর্নিমাণ করেছেন। তবে বাড়িটি পুনর্নিমাণের জন্য তিনি ব্যাংক ও প্রেসিডেন্ট দপ্তরের ফান্ড থেকে ঋণ নেন। তবে সেক্ষেত্রে প্রেসিডেন্ট হিসেবে কোন ধরনের প্রভাব খাটাননি তিনি। পুনর্নিমিত দুই তলা ভবনে চারটি ফ্ল্যাট রয়েছে। প্রেসিডেন্ট ভবন ছাড়ার পর ঐ ভবনেই তিনি ও তার স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে বসবাস শুরু করেছেন।

ইসলাম গ্রহণ করেছেন অভিনেত্রী মমতা কুলকার্নি

নববই দশকে বলিউড কাঁপানো জনপ্রিয় অভিনেত্রী মমতা কুলকার্নি ইসলাম গ্রহণ করেছেন। প্রায় দু’বছর আগে তার স্বামীও ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত হয়েছেন। গত ১৪ বছর গুরুদেব গগন গিরিনাথের শিষ্যতব নিয়ে হিন্দু ধর্মের কঠোর ব্রত-তপস্যার মধ্যে কাটানোর পর এবার ইসলামের সুশীতল ছায়ায় আশ্রয় নিলেন তিনি।

এক সাক্ষাৎকারে মমতা বলেন, ‘আমি এখন পরিপূর্ণভাবে নিজের ব্যবসা ও ধর্ম নিয়েই ব্যস্ত রয়েছি। আমি জানার চেষ্টা করছি মানুষের মূল গন্তব্য কোথায়? আমরা আসলে কি? আমাদের কি করা উচিত। আর সেই জায়গা থেকেই আমি হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে মুসলিম হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি’। তিনি বলেন, ‘কেউ পার্থিব কারণে পৃথিবীতে আসে। কেউ আসে স্রষ্টার আরাধনা করতে। আমি এসেছি দ্বিতীয় কারণে’। পুনরায় চলচ্চিত্রে ফেরা প্রসঙ্গে মমতা বলেন, ‘ঘি ফিরে গিয়ে দুধ হতে পারে, আমার প্রিয় নায়ক শাহরুখ, আমীর ও সালমান বদলেও যেতে পারে কিন্তু মমতাকে আর মিডিয়ার পর্দার সামনে পাওয়া যাবে না। এটি একেবারেই অসম্ভব। আমার জগতে এখন আর শাহরুখ, সালমান, আমীর খানরা নায়ক নন। এ জগতে এখন শুধু স্রষ্টার স্থান’।