সংগঠন সংবাদ


আন্দোলন

 পবিত্র মাহে রামাযান উপলক্ষে র‌্যালী

হাটগাঙ্গোপাড়া, বাগমারা, রাজশাহী ১৯ জুলাই বৃহস্পতিবার :

অদ্য বাদ আছর ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ ও ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ হাটগাঙ্গোপাড়া এলাকার উদ্যোগে পবিত্র মাহে রামাযান উপলক্ষে এক র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। হাটগাঙ্গোপাড়া বাজার আহলেহাদীছ জামে মসজিদ থেকে শুরু হয়ে বাজারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড় ও রাস্তা প্রদক্ষিণ করে পুনরায় মসজিদে এসে র‌্যালীটি সমাপ্ত হয়। এ সময় সংগঠনের বিভিন্ন প্রচারপত্র বিতরণ করা হয়। র‌্যালী শেষে হাটগাঙ্গোপাড়া বাজার মসজিদে মাহে রামাযানের গুরুত্ব ও তাৎপর্য সম্পর্কে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহী যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাংগঠনিক সম্পাদক মাস্টার সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘সোনামণি’র কেন্দ্রীয় পরিচালক ইমামুদ্দীন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় তাবলীগ সম্পাদক আব্দুল হালীম বিন ইলিয়াস। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী-উত্তর সাংগঠনিক যেলা ‘যুবসংঘ’-এর সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. মুহসিন।

বগুড়া ১৯ জুলাই বৃহস্পতিবার : অদ্য বাদ আছর ‘সোনামণি’ বগুড়া যেলার উদ্যোগে পবিত্র মাহে রামাযান উপলক্ষে এক র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। শহরের আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠ থেকে শুরু হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক সমূহ প্রদক্ষিণ করে সাতমাথায় এসে পথসভার মাধ্যমে র‌্যালীটি সমাপ্ত হয়। পথসভায় বক্তব্য রাখেন ‘সোনামণি’ বগুড়া যেলার প্রধান উপদেষ্টা ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মুহাম্মাদ আব্দুর রহীম, যেলা ‘যুবসংঘে’র সভাপতি ও ‘সোনামণি’ যেলা উপদেষ্টা মুহাম্মাদ আব্দুস সালাম, যেলা ‘সোনামণি’-এর পরিচালক আব্দুস সালাম, সহ-পরিচালক ও সাবগ্রাম মাদ্রাসাতুল হাদীছ আস-সালাফিইয়াহ ও দারুল আইতাম এর শিক্ষক আব্দুস সালাম। র‌্যালিতে চার শতাধিক সোনামণি ও সুধী অংশগ্রহণ করেন।

সাতক্ষীরা ১৯ জুলাই বৃহস্পতিবার : অদ্য বাদ আছর ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ সাতক্ষীরা যেলার উদ্যোগে মাহে রামাযানের পবিত্রতা রক্ষার দাবীতে এক র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। শহরের আব্দুর রাযযাক পার্ক থেকে শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় আব্দুর রাযযাক পার্কে এসে র‌্যালীটি সমাপ্ত হয়। এই সময় উপস্থিত ছিলেন যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা আব্দুল মান্নান, সহ-সভাপতি ফযলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আলতাফ হোসাইন, যেলা ‘যুবসংঘে’র সভাপতি মুহাম্মাদ সিরাজুল ইসলাম, সহ-সভাপতি হাফেয মুহাম্মাদ মুহসিন, সাবেক কেন্দ্রীয় অর্থ  সম্পাদক অধ্যাপক শাহীদুযযামান ফারূক, যেলা ‘যুবসংঘে’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুযাযফর রহমান প্রমুখ।

আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল

ধামরাই, ঢাকা ২৭ জুলাই, ৭ রামাযান শুক্রবার : অদ্য বাদ জুম‘আ ঢাকা যেলার ধামরাই থানাধীন ইকুরিয়া পূর্বপাড়া আহলেহাদীছ জামে মসজিদে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাংগঠনিক সম্পাদক ও স্থানীয় কাকরান দাখিল মাদরাসার সুপার মাওলানা সাইফুল ইসলাম বিন হাবীবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক ডঃ মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাধারণ সম্পাদক জনাব তাসলীম সরকার। অনুষ্ঠান শেষে অধ্যাপক হাবীবুর রহমানকে সভাপতি ও ডাঃ আতাউর রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে ১০ সদস্য বিশিষ্ট ‘আন্দোলন’-এর ইকুরিয়া এলাকা এবং নাছরুল্লাহকে সভাপতি ও রুবেল মিয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে ৯ সদস্য বিশিষ্ট ‘যুবসংঘ’-এর ইকুরিয়া এলাকা কমিটি গঠন করা হয়।

উল্লেখ্য যে, ইকুরিয়া পূর্বপাড়া জামে মসজিদে ডঃ মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন, ইকুরিয়া মধ্যপাড়া জামে মসজিদে জনাব সাইফুল ইসলাম বিন হাবীব ও ইকুরিয়া বড়পাড়া জামে মসজিদে তাসলীম সরকার জুম‘আর খুৎবা পেশ করেন। ইকুরিয়ায় ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র এলাকা কমিটি গঠিত হওয়ায় স্থানীয় মুছল্লী ও সুধীবৃন্দের মধ্যে ব্যাপক সাড়া পড়ে এবং ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন’-এর পতাকা তলে সমবেত হয়ে দাওয়াতী কাজ আঞ্জাম দেওয়ার জন্য তারা দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

সাভার, ঢাকা ২৭ জুলাই, ৭ রামাযান শুক্রবার : অদ্য বাদ আছর ঢাকার সাভার থানাধীন গেন্ডা বাজার সংলগ্ন ৩১ রাজাবাড়ীর জনাব আশরাফুল ইসলামের বাসায় ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ সাভার এলাকার উদ্যোগে এক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এলাকা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি ও অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মকর্তা জনাব আশরাফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মাসিক আত-তাহরীক সম্পাদক ও ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক ডঃ মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাধারণ সম্পাদক তাসলীম সরকার ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বিন হাবীব। অনুষ্ঠানের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন সাভার এলাকা ‘আন্দোলন’-এর সহ-সভাপতি কারী হারূনুর রশীদ ও অর্থ সম্পাদক ডাঃ আব্দুল জাববার প্রমুখ।

সূদ ভিত্তিক নয়, যাকাত ভিত্তিক অর্থ ব্যবস্থা চালু করুন!

-মুহতারাম আমীরে জামা‘আত

ঢাকা ৩০ জুলাই সোমবার : অদ্য বাদ আছর ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ ও ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ ঢাকা যেলার উদ্যোগে ঢাকার ‘ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স’ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির ভাষণে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর মুহতারাম আমীরে জামা‘আত ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব উপরোক্ত আহবান জানান। তিনি বলেন, সূদ ভিত্তিক অর্থ ব্যবস্থার ফলে পুঁজিপতিদের সম্পদ বৃদ্ধি পায়, কিন্তু গরীব নিঃস্ব হয়ে পথের ভিখারী হয়ে যায়। অথচ ইসলাম দেড় হাযার বছর আগেই এই অসম অর্থনীতিকে ধিক্কার জানিয়ে চূড়ান্ত নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে এবং তদস্থলে যাকাত ভিত্তিক অর্থ ব্যবস্থা চালুর নির্দেশ প্রদান করেছে। যার মাধ্যমে সমাজের গাছতলা ও পাঁচতলার মধ্যেকার প্রভেদ দূরীভূত হওয়া সম্ভব। তিনি সমবেত কর্মী ও সুধীদেরকে সঠিকভাবে যাকাত আদায়ের এবং তা হকপন্থী সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানে দান করার উদাত্ত আহবান জানান।

ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি আলহাজ্জ মুহাম্মাদ আহসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত ইফতার মাহফিলে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন, দারুল ইফতা-র সদস্য ও আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফী নওদাপাড়া, রাজশাহীর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুর রাযযাক বিন ইউসুফ, ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি মুযাফফর বিন মুহসিন, সাধারণ সম্পাদক আহমাদ আব্দুল্লাহ ছাকিব, ‘সোনামণি’র কেন্দ্রীয় পরিচালক ইমামুদ্দীন প্রমুখ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ‘আন্দোলন’-এর মজলিসে শূরা সদস্য ও কুমিল্লা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা ছফিউল্লাহ, কেন্দ্রীয় শূরা সদস্য অধ্যাপক জালালুদ্দীন, ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাধারণ সম্পাদক তাসলীম সরকার, তাবলীগ সম্পাদক মাওলানা শামসুর রহমান আযাদী, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাওলানা শফীকুল ইসলাম, ঢাকা যেলা ‘যুবসংঘ’-এর সভাপতি ছফিউল্লাহ খান প্রমুখ। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ছিলেন ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর অর্থ সম্পাদক কাযী হারূনুর রশীদ।

উল্লেখ্য যে, বাদ মাগরিব হ’তে রাত সাড়ে আট-টা পর্যন্ত আয়োজিত প্রাণবন্ত প্রশ্নোত্তর পর্বে মুহতারাম আমীরে জামা‘আত শ্রোতাদের মাসআলা-মাসায়েল ও সংগঠন বিষয়ক বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

শরীফপুর, গাযীপুর, ৩১ জুলাই মঙ্গলবার : অদ্য বা‘দ যোহর মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব গাযীপুর যেলা ‘যুবসংঘ’-এর সহ-সভাপতি মুহাম্মাদ যুবায়েরের অসুস্থ পিতা জনাব সিরাজুদ্দীন মোল্লার সাথে সাক্ষাতের জন্য এক সংক্ষিপ্ত সফরে গাযীপুর যেলার শরীফপুরে গমন করেন। সেখানে পৌঁছে তিনি স্থানীয় নবনির্মিত আবু বকর (রাঃ) জামে মসজিদে যোহরের ছালাত আদায়ের পর উপস্থিত মুছল্লীদের উদ্দেশ্যে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে আহলেহাদীছ আন্দোলনের মৌলিক দাওয়াত তুলে ধরেন। অতঃপর অসুস্থ রোগীর বাসায় গিয়ে তাঁর সাথে সাক্ষাৎ করেন এবং তাঁর সার্বিক সুস্থতা কামনা করে দো‘আ করেন। উল্লেখ্য যে, দীর্ঘদিন যাবৎ প্যারালাইসিস রোগে শয্যাশায়ী জনাব সিরাজুদ্দীন মোল্লা মুহতারাম আমীরে জামা‘আতের সাথে সাক্ষাতের প্রবল আকাংখ্যা পোষণ করেছিলেন। তাই ঢাকা সফরের এক ফাঁকে তিনি এই বয়োবৃদ্ধ শুভাকাঙ্খীর সাথে সাক্ষাৎ করেন।

এসময় আমীরে জামা‘আতের সফরসঙ্গী ছিলেন মাসিক আত-তাহরীক সম্পাদক ও ‘আন্দোলন’-এর প্রচার ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন, ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন’ সঊদী আরব শাখার সাবেক সভাপতি জনাব আবুল কালাম আযাদ, ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আহমাদ আব্দুল্লাহ ছাকিব এবং ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর অর্থ সম্পাদক কাযী হারূনুর রশীদ। একই দিনে তিনি ‘আন্দোলন’-এর ঢাকা অফিসে ইফতার করেন ও দায়িত্বশীলদের সঙ্গে বৈঠক করেন। অতঃপর তিনি রাতে বায়তুল মুকাররম চত্বরে আয়োজিত মাসব্যাপী ই.ফা.বা. বইমেলায় হাদীছ ফাউন্ডেশন বুক স্টল পরিদর্শন করেন।

রাজশাহী, ০৬ আগস্ট, সোমবার : অদ্য দারুলহাদীছ বিশ্ববিদ্যালয় (প্রস্তাবিত) জামে মসজিদে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ, রাজশাহী মহানগরীর উদ্যোগে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব বলেন, সার্বিক জীবনে আল্লাহভীতিই ব্যক্তি ও জাতীয় উন্নয়নের চাবিকাঠি। তিনি বলেন, যে আল্লাহ্র ভয়ে আমরা ছিয়াম অবস্থায় গোপনেও এক গ্লাস পানি পান করি না, সেই আল্লাহ্র ভয়ে কি ইফতার থেকে সাহারী পর্যন্ত যাবতীয় হারাম থেকে বিরত থাকতে পারি না? তিনি বলেন, এই একমাসের প্রশিক্ষণ আগামী ১১ মাস ধরে রাখতে পারলেই আমাদের ইহকালীন মঙ্গল ও পরকালীন মুক্তি সম্ভব।

মহানগর ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা রুস্তম আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত ইফতার মাহফিলে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় যুববিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক আমীনুল ইসলাম, মাসিক আত-তাহরীক সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন, ‘আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফী, নওদাপাড়ার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুর রাযযাক বিন ইউসুফ, মহানগর ‘আন্দোলন’-এর সাধারণ সম্পাদক সুলতান আহমাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ সিরাজুল হক প্রমুখ। অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন মহানগর ‘আন্দোলন’-এর দফতর সম্পাদক অধ্যাপক মবিনুল ইসলাম সহ মহানগর কমিটির অন্যান্য সদস্য বৃন্দ।

যুবসংঘ

কৃতি ছাত্র সংবর্ধনা

সাতক্ষীরা ১৯ জুলাই বৃহস্পতিবার : অদ্য বেলা ১১-টায় ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ সাতক্ষীরা সাংগঠনিক যেলার উদ্যোগে সাতক্ষীরা পৌর অডিটরিয়ামে ২০১২ সালের এস.এস.সি/দাখিল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রদেরকে এক সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। যেলা ‘যুবসংঘ’-এর সভাপতি মুহাম্মাদ সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর  কেন্দ্রীয় প্রধান উপদেষ্টা প্রফেসর মুহাম্মাদ নযরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি নূরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আহমাদ আব্দুল্লাহ ছাকিব, সাবেক কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক শেখ রফীকুল ইসলাম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা আব্দুল মান্নান, সহ-সভাপতি মাওলানা ফযলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আলতাফ হোসাইন, সদর উপযেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মুহাম্মাদ আব্দুল খালেক, যেলা ‘যুবসংঘে’র সহ-সভাপতি হাফেয মুহাম্মাদ মুহসিন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল-মামূন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুযাফফর রহমান প্রমুখ।

আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল

রাজশাহী ০২ আগস্ট বৃহস্পতিবার : অদ্য বেলা ৩-টায় নগরীর সাফাওয়াং চাইনিজ রেস্টুরেন্টে ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার উদ্যোগে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রদত্ত প্রধান অতিথির ভাষণে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব বলেন, নোংরা দলীয় রাজনীতি ও অনৈসলামী সংস্কৃতির নামে শয়তানী আগ্রাসন হ’তে তোমরা সর্বদা দূরে থাকবে। আখেরাতে সফলতা লাভকে জীবনের লক্ষ্য হিসাবে নির্ধারণ করবে। জ্ঞানার্জনের জন্য আমি তোমাদেরকে রাজনীতির মিছিলে নয়, বরং সর্বদা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাসে ও লাইব্রেরীতে দেখতে চাই। তোমরা প্রকৃত মানুষ হও। শিক্ষা মানুষকে প্রকৃত মানুষে পরিণত করে। জীবনের সর্বক্ষেত্রে তোমরা কুরআন ও হাদীছের দু’টি আলোকস্তম্ভ থেকে আলো নিয়ে পথ চলবে। ইনশাআল্লাহ তোমরা ইহকাল ও পরকালে সফলকাম হবে।

‘যুবসংঘ’ রাবি শাখার সভাপতি হাফেয মুকাররম-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত ইফতার মাহফিলে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘে’র কেন্দ্রীয় সভাপতি মুযাফফর বিন মুহসিন, আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফী নওদাপাড়ার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুর রাযযাক বিন ইউসুফ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সৈয়দ আবু আব্দুল্লাহ প্রমুখ। অনুষ্ঠানের বিশেষ আকর্ষণ ছিল প্রশ্নোত্তর পর্ব। এতে উত্তর প্রদান করেন কেন্দ্রীয় সভাপতি মুযাফফর বিন মুহসিন। অনুষ্ঠানটি বিকাল ৩ টা থেকে শুরু হয়ে ইফতার-এর মাধ্যমে শেষ হয়।

রাজশাহী ০৮ আগস্ট বুধবার : অদ্য বেলা সাড়ে ৩-টায় নগরীর সাফাওয়াং চাইনিজ রেস্টুরেন্টে ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ রাজশাহী মহানগরীর উদ্যোগে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রদত্ত প্রধান অতিথির ভাষণে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব বলেন, যে কোন মূল্যে নিজেকে আল্লাহ্র পথে ধরে রাখো। আখেরাতে সফলতা লাভকে জীবনের লক্ষ্য হিসাবে গ্রহণ করো। পবিত্র কুরআন ও ছহীহ হাদীছের আলোকে সমাজ পরিবর্তনের লক্ষ্যে তোমরা আত্মনিবেদিত হও!

মহানগর ‘যুবসংঘে’র সভাপতি মুখতারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত ইফতার মাহফিলে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাসিক আত-তাহরীক সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন, আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফী, নওদাপাড়ার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুর রাযযাক বিন ইউসুফ, ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় মুবাল্লিগ শরীফুল ইসলাম, ‘যুবসংঘে’র কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আহমাদ আব্দুল্লাহ ছাকিব প্রমুখ। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর গবেষণা ও প্রকাশনা সম্পাদক অধ্যাপক আব্দুল লতীফ ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি ডাঃ ইদরীস আলী। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ছিলেন ‘যুবসংঘ’ রাবি শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মান্নান।

 মৃত্যু সংবাদ

‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর মজলিসে শূরা সদস্য ও রাজশাহী যেলার অর্থ সম্পাদক মাস্টার মুহাম্মাদ আব্দুল খালেক (৬৫) গত ১৮ জুলাই সকাল ১১-টায় রাজশাহী যেলার গোদাগাড়ী থানাধীন উপরবিল্লী গ্রামের নিজ বাড়ীতে ইন্তিকাল করেন। ইন্নালিল্ল­া-হি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিঊন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে ও ২ মেয়ে রেখে গেছেন। একই দিন বিকাল ৬-টায় তাঁর নিজ গ্রাম উপরবিল্লীতে তাঁর জানাযার ছালাত অনুষ্ঠিত হয়। জানাযার ছালাতে ইমামতি করেন মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব। এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় দফতর ও যুববিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক আমীনুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক ডঃ মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন, কেন্দ্রীয় শূরা সদস্য ড. মুহাম্মাদ কাবীরুল ইসলাম, ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় অফিস সহকারী মোফাক্ষার হোসাইন ও আনোয়ারুল হক, রাজশাহী যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি ডা. ইদ্রী্স আলী প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

মাস্টার আব্দুল খালেক প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর সক্রিয় কর্মী ছিলেন। সংগঠনের অধীনে মানোন্নয়ন পরীক্ষার মাধ্যমে তিনি কেন্দ্রীয় কাউন্সিল সদস্য মানে উন্নীত হন। ১৯৯৪ সালে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ গঠিত হওয়ার পর তিনি আন্দোলনে যোগ দেন। তিনি এ সংগঠনের কেন্দ্রীয় পরিষদ সদস্য ছিলেন। তিনি ছিলেন শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ‘আন্দোলন’-এর একজন নিবেদিতপ্রাণ কর্মী।

উল্লেখ্য, তিনি ১৯৫৯ সালে ঝিনা ফ্রী প্রাইমারী স্কুল হ’তে ৫ম শ্রেণী পাশ করে কাকনহাট উচ্চবিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তি হন। ১৯৬৫ সালে এস.এস.সি পরীক্ষায় ২য় বিভাগে উত্তীর্ণ হন। অতঃপর ১৯৬৯ সালে ১ম বিভাগে রাজশাহী বোর্ড থেকে এইচ.এস.সি পাশ করেন। ১৯৭২ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে প্রাইভেট পরীক্ষার্থী হিসাবে বি.এ ডিগ্রী লাভ করেন। স্মর্তব্য যে, তিনি মেধাবী ছাত্র হিসাবে পরিচিত ছিলেন। ছাত্রাবস্থায় শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ১ম স্থান অধিকার করে ১৯৬৫ সালে সহকারী শিক্ষক হিসাবে চান্দলাই ভূষণা ফ্রী প্রাইমারী স্কুলে যোগদান করেন। পরের বছর রাজশাহী পিটিআই থেকে সি.এন.এড. প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। তিনি রিশিকুল, পাকড়ী, মোহনপুর ইউনিয়নের সবকটি উল্লেখযোগ্য স্কুলে অত্যন্ত সুনাম ও যোগ্যতার সাথে শিক্ষকতা করেছেন। তিনি বিভাগীয় প্রমোশনে উপযেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার পদে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়েও তা গ্রহণ করেননি।

তিনি পেশায় শিক্ষক হ’লেও সামাজিক ব্যক্তিত্ব হিসাবে ললিতনগর উচ্চ বিদ্যালয়, পাকড়ী উচ্চ বিদ্যালয়, জয়রামপুর উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভূমিকা রাখেন। এছাড়াও  অত্রাঞ্চলে সংগঠনের উদ্যোগে মসজিদ, পাঠাগার, গভীর নলকূপ স্থাপনে ও অন্যান্য বিষয়ে সহায়তা করে জনসেবায় উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন।

[আমরা তাঁর রূহের মাগফেরাত কামনা করছি এবং শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। আল্লাহ তাকে জান্নাতুল ফেরদৌস নছীব করুন-আমীন! -সম্পাদক]

 

HTML Comment Box is loading comments...