সংগঠন সংবাদ


আন্দোলন

১২ তাকবীরে ঈদের জামা‘আত
কালীগঞ্জ, সাতক্ষীরা ১১ সেপ্টেম্বর শনিবার : এই প্রথমবারের মত ছহীহ হাদীছের নির্দেশনা অনুযায়ী ১২ তাকবীরে ঈদের ছালাত আদায়ের সুযোগ লাভ করেছেন সাতক্ষীরা যেলার কালীগঞ্জ থানাধীন চরদোহা গ্রামের কিছু সংখ্যক হকপন্থী মুসলিম ভাই ও বোনেরা। উক্ত গ্রামের ডাক্তার শওকত আলীর বাড়ীর পার্শ্ববর্তী মাঠে এ বছর ঈদুল ফিতরের ছালাতের মাধ্যমে অত্র এলাকায় প্রথম ১২ তাকবীরে ঈদের জামা‘আত শুরু হ’ল। পূর্ব নির্ধারিত সময় সকাল ৯-টায় বাঁকাল দারুল হাদীছ আহমাদিয়া সালাফিয়ার শিক্ষক আবুল হাসান রহমানীর ইমামতিতে ছালাত শুরু হয়। প্রথম বারের মত অনুষ্ঠিত এই ছালাতে ২৪ জন মহিলাসহ শতাধিক মুছল্লী অংশগ্রহণ করেন। উল্লেখ্য যে, ১২ তাকবীরে ঈদের ছালাত অনুষ্ঠানের সংবাদ ব্যানার সহ মাইকিং করে এলাকাবাসীকে পূর্বেই অবহিত করা হয় এবং সকলকে ছালাতে অংশ গ্রহণের আহবান জানানো হয়।

শ্যামনগর, সাতক্ষীরা ১১ সেপ্টেম্বর শনিবার : যেলার শ্যামনগর থানাধীন আটুলিয়া চরের বিল আহলেহাদীছ জামে মসজিদ সংলগ্ন ঈদগাহ ময়দানে অদ্য ঈদুল ফিতরের ছালাত প্রথম বারের মত ১২ তাকবীরে অনুষ্ঠিত হয়। স্থানীয় আটুলিয়া দাখিল মাদরাসার শিক্ষক ও শ্যামনগর উপযেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা মুতীউর রহমান-এর ইমামতিতে অনুষ্ঠিত উক্ত জামা‘আতে পাঁচ শতাধিক মুছল্লী অংশগ্রহণ করেন। বিশুদ্ধ পদ্ধতিতে ছালাত আদায় করতে পারায় সকলে মহান আল্লাহ্র শুকরিয়া আদায় করেন। উল্লেখ্য যে, স্থানীয় ভিন্ন মতাবলম্বী মুসলমানদের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রতিবন্ধকতার মুখে অবশেষে ছহীহ হাদীছ অনুযায়ী ঈদের ছালাত অনুষ্ঠিত হ’ল। ফালিল্লা-হিল হাম্দ

আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল
(গত সংখ্যার পর)


বরিশাল ১৬, ১৭ ও ১৮ আগষ্ট : কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসাবে ১৬ আগষ্ট বরিশাল শহরের পুলিশ লাইন আহলেহাদীছ জামে মসজিদে অত্র মসজিদের খতীব মামুন বিন শহীদুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং ১৭ আগষ্ট বাউফল উপযেলার পূর্ব সামেশ্বর আহলেহাদীছ জামে মসজিদে অত্র মসজিদের খতীব ডাঃ মাওলানা হারূণুর রশীদের সভাপতিত্বে ও ১৮ আগষ্ট মেহেন্দীগঞ্জ থানার উলানিয়া বাজার আহলেহাদীছ জামে মসজিদে উলানিয়া শাখা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা আব্দুল খালেকের সভাপতিত্বে পৃথক পৃথক ইফতার মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত ইফতার মাহফিল সমূহে কেন্দ্রীয় মেহমান হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় শূরা সদস্য ও বরিশাল বিভাগীয় সম্পাদক অধ্যাপক মুহাম্মাদ আব্দুল হামীদ।
রংপুর ২৯ আগষ্ট রবিবার : অদ্য বাদ আছর যেলার সঠিবাড়ী বড়দরগা আহলেহাদীছ জামে মসজিদে রংপুর যেলা ‘আন্দোলন’-এর উদ্যোগে এক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। যেলা ‘আন্দোলন’-এর সহ-সভাপতি আব্দুল হাদী মাষ্টারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাওলানা নূরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক হারূণুর রশীদ ও নীলফামারী যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব খায়রুল আযাদ।
লালমণিরহাট ৩০ আগষ্ট সোমবার : অদ্য বাদ আছর যেলার আদিতমারী থানাধীন মহিষখোচা চৌরাহা মাদরাসা ময়দানে যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র উদ্যোগে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাওলানা নূরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মেহেরপুর যেলা ‘আন্দোলন’-এর সহ-সভাপতি মাওলানা মানছূরুর রহমান।
খুলনা ৩০ আগষ্ট সোমবার : অদ্য বিকাল ৪-টায় নগরীর গোবরচাকা মোহাম্মাদিয়া জামে মসজিদে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ ও ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ খুলনা যেলার উদ্যোগে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক বাহারুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি ড. মুহাম্মাদ কাবীরুল ইসলাম ও সহ-সভাপতি অধ্যাপক মুহাম্মাদ আকবার হোসাইন।
কুষ্টিয়া-পূর্ব ৩০ আগষ্ট সোমবার : অদ্য বাদ আছর যেলার নন্দলালপুর আহলেহাদীছ জামে মসজিদে যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র উদ্যোগে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব আব্দুল ওয়াহহাবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় সাহিত্য ও পাঠাগার সম্পাদক অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুহাম্মাদ আব্দুর রশীদ আখতার।
রাজবাড়ী ৩১ আগষ্ট মঙ্গলবার : অদ্য বাদ আছর যেলার সত্যজিৎপুর আহলেহাদীছ জামে মসজিদে ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘ’ রাজবাড়ী যেলার যৌথ উদ্যোগে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব আবুল কালাম আযাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় সাহিত্য ও পাঠাগার সম্পাদক অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুহাম্মাদ আব্দুর রশীদ আখতার।
নীলফামারী ৩১ আগষ্ট মঙ্গলবার : অদ্য বাদ আছর যেলার জলঢাকা থানাধীন কৈমারী আহলেহাদীছ জামে মসজিদে যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র উদ্যোগে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মুহাম্মাদ খায়রুল আযাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাওলানা নূরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মেহেরপুর যেলা ‘আন্দোলন’-এর সহ-সভাপতি মাওলানা মানছূরুর রহমান।
বাগেরহাট ৩১ আগষ্ট মঙ্গলবার : অদ্য বাদ আছর বাগেরহাট শহরের উপকণ্ঠে আল-মারকাযুল ইসলামী কালদিয়া জামে মসজিদে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি সরদার আশরাফ হোসাইন-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত রামাযানের গুরুত্ব ও তাৎপর্য শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক জনাব বাহারুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি ড. মুহাম্মাদ কাবীরুল ইসলাম।
নওগাঁ ৩১ আগষ্ট মঙ্গলবার : অদ্য বাদ আছর যেলার মান্দা থানাধীন পাঁজরভাঙ্গা আহলেহাদীছ জামে মসজিদে যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র উদ্যোগে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সহ-সভাপতি মুহাম্মাদ আফযাল হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর যুববিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক আমীনুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় তাবলীগ সম্পাদক মুহাম্মাদ আরীফুল ইসলাম।
পঞ্চগড় ১ সেপ্টেম্বর বুধবার : অদ্য বাদ আছর যেলার সদর থানাধীন ফুলবাড়ী বাজার আহলেহাদীছ জামে মসজিদে  যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র উদ্যোগে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা মুহাম্মাদ আব্দুল আহাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাওলানা নূরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মেহেরপুর যেলা ‘আন্দোলন’-এর সহ-সভাপতি মাওলানা মানছূরুর রহমান।
জয়পুরহাট ১ সেপ্টেম্বর বুধবার : অদ্য বাদ আছর যেলার কালাই বাজারে যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র উদ্যোগে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব মাহফূযুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নূরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘সোনামণি’-এর সাবেক কেন্দ্রীয় পরিচালক শিহাবুদ্দীন আহমাদ।
কুমিল্লা ১ সেপ্টেম্বর বুধবার : অদ্য বাদ আছর যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র উদ্যোগে বুড়িচং বাজার আহলেহাদীছ জামে মসজিদে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা মুহাম্মাদ ছফিউল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘে’র কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মুযাফফর বিন মুহসিন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা যেলা ‘যুবসংঘে’র সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ ফযলুল হক।
চট্টগ্রাম ২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার : অদ্য বাদ আছর যেলা ‘আন্দোলন’-এর উদ্যোগে নগরীর ইপিজেড সংলগ্ন নিউমুরিং মাদরাসা মার্কেটে যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি ডাঃ শামীম আহসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক ডঃ মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মুযাফফর বিন মুহসিন।
দিনাজপুর-পূর্ব ২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার : অদ্য বাদ আছর স্থানীয় পাকুড়িয়া দারুস সুন্নাহ মাদরাসা ও ইয়াতীমখানা ময়দানে  যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘের’ উদ্যোগে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ শহীদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নূরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, ‘সোনামণি’-এর সাবেক কেন্দ্রীয় পরিচালক শিহাবুদ্দীন আহমাদ।
ঢেঙ্গারগড়, জামালপুর ২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার : অদ্য বাদ আছর যেলার ইসলামপুর থানাধীন ঢেঙ্গারগড় আহলেহাদীছ জামে মসজিদে ‘আন্দোলন’-এর উদ্যোগে ও সাবেক যেলা সভাপতি মাওলানা নূরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি ড. মুহাম্মাদ কাবীরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর রংপুর বিভাগীয় সম্পাদক ও বগুড়া যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব আব্দুর রহীম।
সাতকানিয়া, চট্টগ্রাম ৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার : অদ্য বাদ আছর  যেলার সাতকানিয়া থানাধীন চরপাড়াস্থ মনটানা কমিউনিটি সেন্টারে এক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। সাতকানিয়া মাহমূদুল উলূম ফাযিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আযীযুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মাসিক আত-তাহরীক সম্পাদক ও ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মুযাফফর বিন মুহসিন, চট্টগ্রাম দারুল উলূম আলিয়া মাদরাসার মুহাদ্দিছ মাওলানা মুহাম্মাদ মুহসিন ও লোহাগাড়া থানাধীন আমীরাবাদ ছূফিয়া আলীয়া মাদরাসার ভাইস প্রিন্সিপ্যাল মাওলানা এনামুল হক প্রমুখ।
আলেম-ওলামা, ছাত্র-শিক্ষক ও সাধারণ মুছল্লী সমন্বিত প্রায় দেড় শতাধিক মানুষের উপস্থিতি অনুষ্ঠানকে প্রাণবন্ত করে তুলে। বিশেষ করে এই প্রথমবারের মত অত্র এলাকায় আহলেহাদীছ-এর কোন অনুষ্ঠান হওয়ায় এর গুরুত্ব বৃদ্ধি পায়। কেন্দ্রীয় মেহমানদের দলীল ভিত্তিক বক্তব্য সকলকে আকৃষ্ট করে। সভাপতির সংক্ষিপ্ত ভাষণের এক পর্যায়ে মাওলানা আযীযুল হক মন্তব্য করেন যে, আজকের এই অনুষ্ঠানটি যেন একটি কামেল ক্লাস। এটি কোন গতানুগতিক অনুষ্ঠান নয়। অনুষ্ঠানটির সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন যেলা ‘আন্দোলন’-এর প্রশিক্ষণ সম্পাদক ও পশ্চিম গাটিয়াডাঙ্গা ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসার শিক্ষক জনাব মুহাম্মাদ মুরতাযা আলী, একই প্রতিষ্ঠানের সাবেক শিক্ষক মাওলানা আবু তাহের ও জনতা ব্যাংক রূপকানিয়া শাখার কর্মকর্তা জনাব মাহমূদুর রহমান।
দিনাজপুর-পশ্চিম ৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার : অদ্য বাদ আছর বিরল থানাধীন রবিপুর সরকার পাড়া আহলেহাদীছ জামে মসজিদে যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র উদ্যোগে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব ইদ্রীস আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে কেন্দ্রীয় মেহমান হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নূরুল ইসলাম ও ‘সোনামণি’-এর সাবেক কেন্দ্রীয় পরিচালক শিহাবুদ্দীন আহমাদ।
ময়মনসিংহ ৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার : অদ্য বাদ আছর যেলার ফুলবাড়িয়া থানাধীন আন্ধারিয়া পাড়া আহলেহাদীছ জামে মসজিদে যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র উদ্যোগে ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা আব্দুর রাযযাকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি ড. মুহাম্মাদ কাবীরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর রংপুর বিভাগীয় সম্পাদক ও বগুড়া যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব আব্দুর রহীম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য পেশ করেন ঢাকা যেলা ‘যুবসংঘ’-এর সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ ফযলুল হক।
গাযীপুর ৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার : অদ্য বাদ আছর যেলার মণিপুর বাজার আহলেহাদীছ জামে মসজিদে যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র উদ্যোগে ও যেলা সভাপতি জনাব হাবীবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে বক্তব্য পেশ করেন মুহাম্মাদ শফীকুল ইসলাম ও আছমত আলী প্রমুখ।
কক্সবাজার ৪ সেপ্টেম্বর শনিবার : অদ্য বাদ যোহর কক্সবাজার শহরের উত্তর বাহারছড়াস্থ ইসলাম প্রচার ও গবেষণা কেন্দ্রে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ডা. মাহবূবুল আলম-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মাসিক ‘আত-তাহরীক’-এর সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ‘বাংলাদেশ ও আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মুযাফফর বিন মুহসিন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম যেলা ‘আন্দোলন’-এর প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুহাম্মাদ মুরতাযা আলী, কক্সবাজার উকিল বার-এর সভাপতি এ্যাডভোকেট আবুল কালাম ছিদ্দীক, এ্যাডভোকেট গোলাম ফারূক খান কায়ছার সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। অনুষ্ঠানে সঞ্চালক ছিলেন ইসলাম প্রচার ও গবেষণা কেন্দ্রের সহ-সভাপতি জনাব আহমাদুল্লাহ।
চকরিয়া, কক্সবাজার ৪ সেপ্টেম্বর শনিবার : অদ্য বাদ আছর চকরিয়া পৌরসভা থেকে অন্যূন ৫ কিঃমিঃ দক্ষিণে সওদাগর গোনা গ্রামের জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে পবিত্র কুরআন ও ছহীহ হাদীছের আলোকে সার্বিক জীবন গড়ে তোলার প্রতি গুরুত্বারোপ করে বক্তব্য পেশ করেন আত-তাহরীক-এর সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন ও ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মুযাফফর বিন মুহসিন।
মেহেরপুর ৪ সেপ্টেম্বর শনিবার : অদ্য বাদ আছর যেলার মুজিবনগর থানাধীন কেদারগঞ্জ বাজার আহলেহাদীছ জামে মসজিদে যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র উদ্যোগে ও মুজিবনগর থানা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি আযমাতুল্লাহ মাষ্টারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাওলানা নূরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুহাম্মাদ আব্দুর রশীদ আখতার ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ তরীকুযযামান।
সিলেট ৫ সেপ্টেম্বর রবিবার : অদ্য বাদ আছর যেলা ‘আন্দোলন’-এর উদ্যোগে নগরীর পশ্চিম সুবিদবাজারস্থ এডুকেশন সেন্টারে ইসলামী দাওয়া বিষয়ক সেমিনার ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। যেলা   ‘আন্দোলন’-এর সাবেক সভাপতি আব্দুছ ছবূর চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মাসিক আত-তাহরীক-এর সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ‘যুবসংঘে’র কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মুযাফফর বিন মুহসিন। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন ‘যুবসংঘে’র সাবেক কেন্দ্রীয় তাবলীগ সম্পাদক মাওলানা আবু তাহের। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যেলা ‘আন্দোলন’-এর আহবায়ক মাওলানা আব্দুছ ছামাদ।
চুয়াডাঙ্গা ৫ সেপ্টেম্বর রবিবার : অদ্য বাদ আছর যেলার আলমডাঙ্গা থানাধীন বাড়াদি জামে মসজিদে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ আলমডাঙ্গা শাখার উদ্যোগে পবিত্র মাহে রামাযানের গুরুত্ব ও তাৎপর্য শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। স্থানীয় সুধী জনাব মুহাম্মাদ আলাউদ্দীন-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাওলানা নূরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক বাহারুল ইসলাম।
ঝিনাইদহ ৬ সেপ্টেম্বর সোমবার : অদ্য বাদ আছর ডাকবাংলা বাজার আহলেহাদীছ জামে মসজিদে যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র উদ্যোগে ও যেলা  ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাষ্টার ইয়াকূব হোসাইন-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় সাহিত্য ও পাঠাগার সম্পাদক অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি ড. মুহাম্মাদ কাবীরুল ইসলাম ও দফতর সম্পাদক মুহাম্মাদ হারূনুর রশীদ।
সেনগ্রাম, সিলেট ৬ সেপ্টেম্বর সোমবার : অদ্য বাদ আছর যেলার জৈন্তাপুর থানাধীন সেনগ্রাম মুহাম্মাদিয়া সালাফিয়া দাখিল মাদরাসায় এক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অত্র মাদরাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মাষ্টার শফীকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ‘যুবসংঘে’র কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মুযাফফর বিন মুহসিন। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ‘যুবসংঘে’র সাবেক কেন্দ্রীয় তাবলীগ সম্পাদক মাওলানা আবু তাহের। উল্লেখ্য যে, বাদ যোহর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ অত্র মাদরাসার শিক্ষক মন্ডলীর সাথে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হন। এ সময়ে তারা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র সেনগ্রাম মাদরাসা শাখা পুনর্গঠন করেন। অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন অত্র প্রতিষ্ঠানের সুপারিনটেন্ডেন্ট জনাব ফয়যুল ইসলাম।
নাটোর ৭ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার : অদ্য বাদ আছর বাঁশবাড়িয়া আহলেহাদীছ জামে মসজিদে যেলা ‘আন্দোলন’-এর উদ্যোগে ও যেলা সভাপতি ডঃ মুহাম্মাদ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত রামাযানের গুরুত্ব ও তাৎপর্য শীর্ষক আলোচনা সভায় কেন্দ্রীয় মেহমান হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় শূরা সদস্য অধ্যাপক ফারূক আহমাদ। যেলা ‘আন্দোলন’-এর নেতৃবৃন্দসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

সুধী সমাবেশ

নবাবগঞ্জ, দিনাজপুর ৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার : অদ্য বাদ ফজর স্থানীয় রাঘবেন্দ্রপুর আহলেহাদীছ জামে মসজিদে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ রাঘবেন্দ্রপুর শাখার উদ্যোগে এক সুধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। যেলা ‘আন্দোলন’-এর অর্থ সম্পাদক জনাব আনোয়ারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সমাবেশে কেন্দ্রীয় মেহমান হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নূরুল ইসলাম ও ‘সোনামণি’র সাবেক কেন্দ্রীয় পরিচালক শিহাবুদ্দীন আহমাদ।

 


যুবসংঘ

 

আলোচনা সভা
খুলনা ৩১ আগষ্ট মঙ্গলবার : অদ্য বাদ আছর ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ খুলনা সাংগঠনিক যেলার উদ্যোগে খুলনা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় গেটে অবস্থিত ইঞ্জিনিয়ার বাবর আলী ছাহেবের বাড়ীতে মাহে রামাযানের গুরুত্ব ও তাৎপর্য শীর্ষক এক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। যেলা ‘যুবসংঘ’-এর আহবায়ক মুহাম্মাদ রূহুল আমীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি অধ্যাপক আকবার হোসাইন। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাতক্ষীরা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আলতাফ হোসাইন।
মান্দা, নওগাঁ ১ সেপ্টেম্বর বুধবার : অদ্য বাদ আছর যেলার মান্দা থানাধীন কালিকাপুর সিনিয়র মাদরাসা ময়দানে যেলা ‘যুবসংঘ’-এর উদ্যোগে ও কালিকাপুর সিনিয়র মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মকবুল হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি ড. মুহাম্মাদ কাবীরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন যেলা ‘আন্দোলন’-এর সহ-সভাপতি আফযাল হোসাইন ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মুহাম্মাদ শহীদুল আলম।


দ্বি-বার্ষিক কর্মী সম্মেলন ২০১০
আহলেহাদীছ কোন মতবাদ নয়, এটি একটি পথের নাম
-মুহতারাম আমীরে জামা‘আত

গত ২৪ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল ৯-টায় রাজধানী ঢাকার রমনা থানাধীন ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর দ্বি-বার্ষিক কর্মী সম্মেলন ২০১০-এ প্রধান অতিথির ভাষণে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর মুহতারাম আমীর ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের সিনিয়র প্রফেসর ডঃ মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব উপরোক্ত কথা বলেন। তিনি বলেন, পাঁচ ওয়াক্ত ছালাতে আমরা বলি, হে আল্লাহ আপনি আমাদেরকে সরল-সঠিক পথ দেখান। এই পথই হচ্ছে ইসলাম। আর এর ভিত্তি হচ্ছে পবিত্র কুরআন ও ছহীহ হাদীছ। এর উপরই মুসলমানের জীবন চলবে, অন্য কোন পথে নয়। ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন’ এই পথের দিকেই মানুষকে আহবান জানায়। তিনি ছাত্র ও তরুণদেরকে যেকোন ত্যাগের বিনিময়ে ছিরাতে মুস্তাক্বীমের উপর দৃঢ় থাকার আহবান জানান।
তিনি আরো বলেন, আদম (আঃ) থেকে শেষনবী মুহাম্মাদ (ছাঃ) পর্যন্ত সকল নবীর আন্দোলনের ভিত্তি ছিল আল্লাহ্র অহী। নবীগণের সেই আন্দোলন বন্ধ করার জন্য যুগে যুগে যেমন তাগূতী শক্তি সাধ্যমত চেষ্টা করেছে, তেমনি অহি ভিত্তিক পিওর ইসলামী আন্দোলন আহলেহাদীছ আন্দোলনকে স্তব্ধ করে দেওয়ার জন্য সেক্যুলার ও পপুলার ইসলামী শক্তি একত্রিত হয়ে আমাদের উপরে হামলা চালিয়েছিল। কিন্তু সত্যই অবশেষে জয়লাভ করে থাকে।
‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি ড. মুহাম্মাদ কাবীরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় প্রধান উপদেষ্টা প্রফেসর মুহাম্মাদ নযরুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল অধ্যাপক মাওলানা নূরুল ইসলাম, ‘যুবসংঘ’-এর সাবেক কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক শেখ রফীকুল ইসলাম, সাবেক সভাপতি ড. এ.এস.এম. আযীযুল্লাহ, মাসিক আত-তাহরীক সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন, দারুল ইফতা সদস্য ও আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফী, নওদাপাড়া, রাজশাহীর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুর রাযযাক বিন ইউসুফ, সোনামণির কেন্দ্রীয় পরিচালক ইমামুদ্দীন, ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা আমানুল্লাহ বিন ইসমাঈল ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ তাসলীম সরকার প্রমুখ।
সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য পেশ করেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক  মুযাফফর বিন মুহসিন, ‘আন্দোলন’-এর কুমিল্লা যেলা সভাপতি মাওলানা ছফিউল্লাহ, খুলনা যেলা সভাপতি মাওলানা জাহাঙ্গীর আলম, সাতক্ষীরা যেলা সভাপতি মাওলানা আব্দুল মান্নান, ‘যুবসংঘ’-এর সাবেক কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মুহাম্মাদ জালালুদ্দীন, ‘যুবসংঘ’ ঢাকা যেলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ছফিউল্লাহ খান, নরসিংদী যেলা সভাপতি  আব্দুল্লাহ আল-মামূন, কুমিল্লা যেলা সভাপতি মুহাম্মাদ সাইফুল ইসলাম, সাতক্ষীরা যেলা সভাপতি অধ্যাপক শাহীদুযযামান ফারূক, সাবেক সভাপতি মাওলানা আলতাফ হোসাইন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ‘যুবসংঘ’-এর সভাপতি হাফেয মুকাররম বিন মুহসিন ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আব্দুল্লাহ যামান প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে কুরআন তেলাওয়াত করে ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় কাউন্সিল সদস্য হাফেয মুকাররম (রাজশাহী) ও হাফেয গোলাম রহমান (সাতক্ষীরা)। ইসলামী জাগরণী পরিবেশন করে ‘যুবসংঘ’-এর কর্মী আবু রায়হান। অনুষ্ঠানে সঞ্চালক ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর সাবেক কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জালালুদ্দীন, ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নূরুল ইসলাম, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি হাফেয মুকাররম ও সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মাদ আব্দুল মান্নান এবং ‘যুবসংঘ’-এর কুমিল্লা যেলার কর্মী মুহাম্মাদ ইবরাহীম।
দেশের বিভিন্ন যেলা থেকে বাস, ট্রেন ও মাইক্রোবাস যোগে আগত কর্মীদের দ্বারা মিলনায়তন ছিল কানায় কানায় পূর্ণ। এমনকি জায়গা সংকুলান  না হওয়ায় মিলনায়তনের বাইরে বসে বহু কর্মী প্রজেক্টরের মাধ্যমে বক্তব্য শ্রবণ করেন। কর্মীদের মুহূর্মুহু শ্লোগানে সম্মেলন কক্ষে এক বিশেষ আবহ সৃষ্টি হয়েছিল। প্রাণবন্ত এ সম্মেলনে বক্তাগণের বিষয়ভিত্তিক তথ্যবহুল আলোচনা কর্মীদের কর্মস্পৃহা, কর্মচাঞ্চল্য ও ঈমানী চেতনা বহুগুণে বাড়িয়ে দিয়েছে। এ সম্মেলন তাই ‘যুবসংঘ’-এর ইতিহাসে এক স্মরণীয় ঘটনা হয়ে থাকবে।
সম্মেলনে দেশের সরকার, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও সাধারণ জনগণের নিকটে নিম্নোক্ত প্রস্তাব সমূহ বিবেচনার জন্য পেশ করা হয়:-

    •  জনগণ বা সংসদ নয়, আল্লাহকে সার্বভৌম ক্ষমতার উৎস হিসাবে ঘোষণা করতে হবে এবং তাঁর প্রেরিত সর্বশেষ ‘অহি’ পবিত্র কুরআন ও ছহীহ হাদীছকে সকল বিষয়ে চূড়ান্ত সমাধান হিসাবে গ্রহণ করতে হবে।

    •  দেশের আইন ও শাসন ব্যবস্থা এবং বিচার ব্যবস্থাকে পবিত্র কুরআন ও ছহীহ হাদীছের আলোকে ঢেলে সাজাতে হবে এবং বৃটিশের রেখে যাওয়া পদ্ধতি বাতিল করতে হবে।

    •  এ সম্মেলন দেশে প্রচলিত ধর্মীয় ও সাধারণ শিক্ষা ব্যবস্থার দ্বিমুখী ধারাকে সমন্বিত করে পবিত্র কুরআন ও ছহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক একক ও পূর্ণাঙ্গ ইসলামী শিক্ষা ব্যবস্থা কায়েমের দাবী জানাচ্ছে এবং সাধারণ ও কারিগরী শিক্ষার সাথে সাথে শিক্ষার সকল স্তরে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ধর্মীয় শিক্ষা বাধ্যতামূলক করার জোর দাবী জানাচ্ছে।

    • এ সম্মেলন ছেলে ও মেয়েদের সহশিক্ষা প্রথা বাতিল করে তাদের জন্য পৃথক শিফটিং ব্যবস্থা চালু করার দাবী জানাচ্ছে।

    •  এ সম্মেলন দাবী জানাচ্ছে যে, প্রচলিত সূদভিত্তিক পুঁজিবাদী অর্থব্যবস্থা বাতিল করে দেশে একক ইসলামী অর্থব্যবস্থা অনতিবিলম্বে চালু করা হউক।

    • এ সম্মেলন দেশে সূদ-ঘুষ, মদ-জুয়া, লটারী, মওজুদদারী-মুনাফাখোরী, নগ্নতা, বেহায়াপনা, সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজি অবিলম্বে বন্ধ করার জন্য সরকারের নিকটে জোর দাবী জানাচ্ছে।

    •  এ সম্মেলন দাবী করছে যে, রেডিও-টেলিভিশনসহ বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমে শিরক ও বিদ‘আতী অনুষ্ঠানাদি এবং অশ্লীল অনুষ্ঠান সমূহ বন্ধ করে জ্ঞান ও উপদেশমূলক এবং তাওহীদ ও সুন্নাহ ভিত্তিক ইসলামী অনুষ্ঠান সমূহ প্রচারের ব্যবস্থা করতে হবে এবং চরিত্র বিধ্বংসী অশ্লীল সাহিত্য ও পত্র-পত্রিকা, নোংরা ছবি ও চলচ্চিত্রসমূহ অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। একইভাবে শিখা অনির্বাণ, শিখা চিরন্তন, শহীদ মিনার, বিভিন্ন সৌধ, স্তম্ভ ও ভাস্কর্য ইত্যাদি নির্মাণের নামে দেশে ক্রমবর্ধমান মূর্তি সংস্কৃতির প্রসার বন্ধ করতে হবে।

    •  এ সম্মেলন ছাত্রদের সুষ্ঠু মেধা বিকাশের স্বার্থে তাদেরকে রাজনৈতিক দল সমূহের লেজুড় হিসাবে ব্যবহার না করার জন্য সরকারী ও বিরোধী দলসমূহের প্রতি আহবান জানাচ্ছে এবং শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানসমূহে প্রচলিত দলীয় রাজনীতির পরিবর্তে দল ও প্রার্থীবিহীন মেধাভিত্তিক ছাত্র সংসদ গঠনের দাবী জানাচ্ছে।

    • এ সম্মেলন উজানের সকল নদীতে বাঁধ দিয়ে ভাটির দেশ হিসাবে বাংলাদেশকে শুকনা মওসুমে শুকিয়ে মারার ও বর্ষা মওসুমে ডুবিয়ে মারার জন্য এবং প্রতিদিন সীমান্তে গড়ে একজন করে নিরীহ বাংলাদেশী নাগরিককে নির্যাতন ও গুলী করে হত্যার জন্য প্রতিবেশী রাষ্ট্রের প্রতি তীব্র ধিক্কার জানাচ্ছে এবং জনগণের জান-মাল রক্ষার জন্য ও দেশের প্রতি ইঞ্চি মাটির স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব অক্ষুন্ন রাখার জন্য বর্তমান সরকারের প্রতি জোরালো আবেদন জানাচ্ছে। 

    •  এ সম্মেলন পাশ্চাত্যের বিভিন্ন দেশে মুসলিম মহিলাদের হিজাব নিষিদ্ধকরণ, নিউইয়র্কে মসজিদ নির্মাণে বাধাদান ও কুরআন পোড়ানো প্রভৃতি বর্বর পদক্ষেপের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে।

    • এ সম্মেলন ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর মুহতারাম আমীরে জামা‘আত ও অন্যান্য নেতা-কর্মীদের উপর বিগত চারদলীয় জোট সরকারের আরোপিত মিথ্যা মামলা সমূহ এখনো নিষ্পত্তি না করায় বর্তমান সরকারের প্রতি তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করছে।