কবিতা

রক্ত দিয়ে গড়া এদেশ

আবুল কাশেম

গোভীপুর, মেহেরপুর।

এইতো মোদের বাংলাদেশ

সোনার চেয়েও দামী,

রক্ত দিয়ে গড়া এদেশ

আমার জন্মভূমি।

মাছে-ভাতে নানা ক্ষেত্রে

বিশ্বে আছে সুনাম,

দুর্নীতির শিকার হয়ে

কামিয়েছে বদনাম।

সেদিন যারা শুত্রু ছিল

দেখতো বাঁকা চোখে

মায়ের চেয়ে মাসির দরদ

দেখায় তারা মুখে।

একাত্তরের কথা আমার

আজও মনে পড়ে,

এখন যেন বসত করি

দুই সতিনের ঘরে।

এসো ভাই সবে মিলে

আমরা সমাজ গড়ি,

ভাইয়ে ভাইয়ে মিলে-মিশে

আল্লাহর পথে চলি।

ছহীহ হাদীছ মেনে চললে

আমল হবে খাঁটি,

ইহকালে পরকালে

আমল হবে সাথী।

 

নামে আহলেহাদীছ

মুহাম্মাদ আব্দুল্লাহ আল-মাহমূদ

মার্কেটিং বিভাগ, কারমাইকেল কলেজ, রংপুর।

বাপ-দাদার সম্পত্তি নয় আমলে পরিচয়,

কুরআন ও ছহীহ হাদীছ মানলে আহলেহাদীছ হয়।

জন্ম থেকে বিদ‘আত পালন করছ দেখি আজ,

ডানে আযান বামে একামত দলীলবিহীন কাজ।

তিন চিল্লায় আলেম হ’ল কুরআন-হাদীছ ছাড়া,

ইলিয়াসী তাবলীগে আজ সমাজ মাতোয়ারা।

ভাগে কুরবানী সফরে ছিল বাড়ির মাঝে এলো,

আক্বীকাও নাকি চলে তাতে সমাজের একি হ’ল!

ফরয ছালাতের পর মুনাজাত চলছে সবখানে,

সঠিক আক্বীদার কথা বললে তারা নাহি মানে।

মসজিদের মিম্বারে বাহার দেখি বেশ,

ডানে আল্লাহ বামে মুহাম্মাদ শিরকের নাই শেষ।

মাহফিলে যিকির চলে মুহাম্মাদের নামে,

বক্তা ছাহেবকে নিতে হচ্ছে অনেক টাকা দামে।

জুম‘আর দিন দুই আযান মুওয়াযি্যনের মুখে,

চল্লিশা পালন করছে আজি মৃত ব্যক্তির সুখে।

জর্দ্দা, গুল খাওয়া নাকি দোষের কিছু নয়,

এসব কথা বলতে তারা কেউ করে না ভয়।

তাবীয লিখে কত আলেম ব্যবসা করে আজ,

শিরক করে কামায় রূযী নেইকো তাদের লাজ।

তবুও তারা আহলেহাদীছ করছে সদা দাবী,

সত্য কথা বলতে গেলে বলে জেএমবি।

***

করুণাময় তুমি

খালেদা আখতার রুনা

বাজুডাঙ্গা, দৌলতপুর, কুষ্টিয়া।

আমি জানি তোমাকে আল্লাহ

ডাকতে পারেনি ভরে মনপ্রাণ,

পারিনি করতে তোমার গুণগান

হয়েছি আমি নাফরমান।

দিয়েছ ধরায় সব নে‘আমত করেছ মোরে দয়া

ছড়িয়ে আছে তোমার রহমত,

তবুও পারিনি বুঝতে তোমায়

কাছে পেয়েও অজস্র নে‘মত।

তুমি ধরণী তুমিই সাথী

আমার অসহায় জীবন মরণে,

করেছ ক্ষমা দিয়েছ ভেলা

দাওনি ফেলে আমায় নির্জন গহিনে।

রেখেছ মান অতি অাঁধারে

নিবিড় রাতের সন্ধিক্ষণে,

আমি নিঃস্ব বড় অসহায়

রাখিনি খবর বাধিনি তোমায় অঙ্গনে।

দিয়েছ যা ভুলেছি তাই

দেখিনি কখনো খেয়াল করে

আমার কোন সহায় নাই,

যদি তুমি যাও দূরে।

তুমি সুন্দর তুমি পবিত্র

তুমি দিশারী আলো-আধারে,

তুমি নিকটে অতি কাছে

আছ পাশে আছ হৃদয়ের গভীরে।

***

পাবে পরিত্রাণ

হুরমা খানম

গড়েরকান্দা, বাঁকাল, সাতক্ষীরা।

বুঝেও যে না বুঝে তাকে বুঝায় কে?

জেগেও যে ঘুমিয়ে থাকে তাকে জাগায় কে?

জ্ঞানহীন মূর্খ মানুষ শেখে দেখে দেখে

শিক্ষিত জ্ঞানী শেখে যদি যায় ঠেকে।

ইহকালের ঠেকা সেতো বড় ঠেকা নয়

পরকালের ঠেকা বড় জানিবে নিশ্চয়।

দুনিয়াতে চলছ তুমি নিজের ইচ্ছামত

ফিকাহ মেনে কুরআন-হাদীছ দলছ অবিরত।

মাযহাবটাকে রাখতে সঠিক অাঁটছ কত ফন্দি

কূটকৌশলে হকপন্থীদের করছ জেলে বন্দী।

জানতে চাওনি অহি-র বিধান মানতে চাওনি কভু

তাইতো তোমায় পরকালে শাস্তি দিবেন প্রভু।

সময় থাকতে হও সাবধান মান হাদীছ-কুরআন

তবেই তুমি পরকালে পাবে পরিত্রাণ।