স্বদেশ-বিদেশ


স্বদেশ

এডিবির আজগুবি তথ্য
মাদরাসাগুলো জঙ্গী প্রশিক্ষণ কেন্দ্র
দেশে প্রচলিত মাদরাসা শিক্ষাকার্যক্রম সময়োপযোগী নয়। শুধু তাই নয় মাদরাসাগুলো পরিণত হয়েছে জঙ্গীদের বড় ধরনের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে। গত ২৯ মার্চ রাজধানীর একটি হোটেলে ‘এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকে’র (এডিবি) অর্থায়নে ‘মাদরাসা শিক্ষার সক্ষমতা বৃদ্ধি’ শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালায় উপস্থাপিত খসড়া প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে। কর্মশালায় ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মঞ্জুর আহমাদ বলেন, ’৭৫-এর পর রাজনৈতিক বিবেচনায় সরকারী অর্থায়নে ধর্মভিত্তিক শিক্ষার সম্প্রসারণ ঘটেছে। একটি বিশেষ উদ্দেশ্যে এটি করা হয়েছে কি-না তা খতিয়ে দেখা দরকার। সরকারী অর্থায়নে সাধারণ শিক্ষার সমান্তরালে এ ধরনের শিক্ষা আর কতটুকু বাড়তে দেয়া উচিত তার সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় এসেছে।  যেলা ও উপযেলা পর্যায়ে অন্যান্য ধারার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অনুপাতে মাদরাসা শিক্ষার সম্প্রসারণ  নিয়ন্ত্রণ করতে হবে’। উক্ত খসড়া প্রতিবেদনটি উপস্থাপন করেন গবেষণা টিমের প্রধান বৃটিশ নাগরিক ক্রিস্টোফার কুমিং।
উক্ত কর্মশালায় উপস্থিত জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের মহাসচিব মাওলানা সাবিবর আহমেদ মমতাজী উক্ত বক্তব্যের প্রতিবাদ করে বলেন, মাদরাসা শিক্ষার উন্নয়নে সমীক্ষা ও গবেষণার কথা বলা হচ্ছে, অথচ এখানে মাদরাসা শিক্ষার সাথে সম্পৃক্ত কেউ নেই। মাদরাসা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইউসুফ বলেন, এর দ্বারা একটি শিক্ষা ব্যবস্থাকে কলুষিত করা হচ্ছে। ইহুদী-খৃষ্টানদের টাকায় গবেষণা সমীক্ষার নামে এ ধরনের নির্জলা মিথ্যা তথ্যের কোনই মূল্য নেই বলে দেশের ওলামায়ে কেরাম মন্তব্য করেছেন।
প্রতিদিন নেশায় অপচয় ৫০ কোটি টাকা
‘ফ্যামিলি হেলফ ইন্টারন্যাশনালে’র তথ্য মতে, বাংলাদেশে প্রায় ৫০ লাখ মাদকসেবী আছে। পুরুষ, নারী ও শিশু মিলে প্রায় এক লাখ মানুষ মাদক বিক্রি ও পাচারের সঙ্গে জড়িত। একজন মাদকসেবী প্রতিদিন গড়ে ১০০ টাকা খরচ করলে দেশে মাদকের পিছেই ব্যয় দাঁড়ায় দিন ৫০ কোটি টাকা। মাদকের ছোবলে অকালে ঝরে পড়ছে বহু তাজা প্রাণ। মাদকসেবীদের সংগঠন ‘নিরন্তর প্রচেষ্টা’র হিসাব অনুযায়ী, গত সাত বছরে রাজধানী ও আশপাশে এক হাযার মাদকাসক্ত মারা গেছে।
মিনারেল ওয়াটারের নামে দূষিত পানি
রাজধানীতে জারে ভর্তি মিনারেল ওয়াটারের নামে খাওয়ানো হচ্ছে দূষিত পানি। এসব পানি পান করে মানুষ পেটের পীড়া, চর্মরোগসহ নানান জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ছে। হাসপাতালগুলোতে বাড়ছে রোগীর সংখ্যা। বেঁচে থাকার জন্য এখন মানুষকে বাধ্য হয়ে খাবার পানি কিনতে হচ্ছে। বেড়ে গেছে জীবনযাত্রার ব্যয়। অপরদিকে বেসরকারী পর্যায়ে ভেজাল ও দূষিত পানি বিক্রি করে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতারক পানি ব্যবসায়ীরা। অনেক ক্ষেত্রে ওয়াসার পানিকে ফিল্টারের মাধ্যমে ছেঁকে তা বাজারজাত করা হয়। রাজধানী ঢাকা ও ঢাকার আশপাশে বৈধ/অবৈধভাবে ব্যাঙের ছাতার মতো গড়ে উঠছে এসব কারখানা। মিনারেল ওয়াটারের কারখানা থেকে হালকা নীল রঙের ১৯ লিটার জারে পানি রিফিল করার আগে জীবাণুনাশক (যেমন হাইড্রোজেন পার অক্সাইড) দিয়ে জীবাণুমুক্ত করার বাধ্যবাধকতা থাকলেও জারপ্রতি বাড়তি ২/৩ টাকা খরচের কারণে তা করা হয় না। জারগুলো ওয়াশিং প্ল্যান্টে না ধুয়ে শুধু পানি দিয়ে হাতে ঝাঁকিয়ে দৃশ্যমান ময়লা পরিষ্কার করা হয়। ফলে কলেরা, আমাশয়, জন্ডিস, টাইফয়েড প্রভৃতি পানিবাহিত জীবাণু ধ্বংস হয় না।
তিন মাসে দেশে ৮৮ জন যৌন হয়রানির শিকার
গত ৩ মাসে সারাদেশে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে ৮৮ জন। যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় কলেজ ছাত্রীসহ নিহত হয়েছে ২ জন এবং আহত হয়েছে ৭৯ জন।  ‘বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা’র জরিপে এ তথ্য ফুটে উঠেছে। জরিপ মতে, গত মাসে ৩৫ জন, ফেব্রুয়ারীতে ৩০ এবং জানুয়ারী মাসে ২৩ জন যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে। এছাড়া গত মার্চ মাসে যৌতুকের জন্য জীবন দিতে হয় ১৫ জনকে এবং একই কারণে নির্যাতিত হন ৪ জন নারী।
মর্মান্তিক!
বছর তিনেক আগে কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপযেলার শম্ভুপুর গ্রামের আবুল হোসাইনের (৪৫) সঙ্গে বিয়ে হয় একই উপযেলার কালাচান মিয়ার মেয়ে সুরাইয়া আক্তারের (১৬)। এক বছরের মধ্যে তাঁদের একটি কন্যাসন্তান হয়। নাম রাখা হয় সুমাইয়া। কিন্তু জন্মের দুই বছরের মধ্যে বাবার সন্দেহ আর অবিশ্বাসের বলি হ’তে হল নিষ্পাপ সুমাইয়াকে। গত ৩ এপ্রিল সুমাইয়াকে গলা কেটে হত্যা করেন আবুল হোসাইন। জানা গেছে, ঐদিন সকাল নয়টার দিকে সুরাইয়া শিশুটিকে খাটে ঘুম পাড়িয়ে বাইরে যায়। এ সময় আবুল হোসাইন দা দিয়ে গলা কেটে সুমাইয়াকে হত্যা করেন।
বসুন্ধরার সূদমুক্ত ঋণে স্বাবলম্বী মাফিয়া খাতুন
ব্রাহ্মণবাড়িয়া যেলার বাঞ্ছারামপুর উপযেলার মিরপুর গ্রামের মৃত নযরুল মিয়ার স্ত্রী মাফিয়া খাতুন বসুন্ধরা ফাউন্ডেশনের সূদমুক্ত ঋণে গড়ে তুলেছেন সাবান ফ্যাক্টরি। হাতি মার্কা নামে যে কাপড় কাঁচার সাবানটি গত দুই যুগ ধরে এই অঞ্চলের বাজার একচেটিয়া ধরে রেখেছিল মাফিয়ার তৈরী সাবানের মূল্য তার চেয়ে কম ও মান ভাল হওয়ায় ৬ মাসেই চাহিদার বিপরীতে পাইকাররা মাফিয়ার কাছে অগ্রিম টাকা দিয়ে সাবানের অর্ডার দেন। ছেলে ও দুই মেয়ের জন্য এক সময় তিনি মানুষের দ্বারে দ্বারে সাহায্য চেয়ে বেড়াতেন। তারপর বসুন্ধরার ঋণ নিয়ে তিনি ক্রমেই স্বাবলম্বী হয়ে ওঠেন। তিনি বলেন, ‘মানুষ অহন রাস্তা-ঘাটে দেখলে ক্যামন আছি খোঁজ-খবর লয়’। উল্লেখ্য, বসুন্ধরা ফাউন্ডেশনের ঋণের জন্য কোন প্রকার সূদ, সার্ভিস চার্জ, ভর্তি ফি, নিরাপত্তা (গ্যারান্টার) দেয়ার জন্য নেই কোন ঝামেলা। সবচেয়ে সুবিধা হল- ঋণ প্রাপ্তির তিন সপ্তাহ পর থেকে ঋণের কিস্তি আদায় শুরু হয় সম্পূর্ণ সূদমুক্তভাবে।


বিদেশ

গুয়ান্তানামো বন্দিদের ওপর মেডিকেল পরীক্ষা চালানোর অভিযোগ
কিউবার গুয়ান্তোনামো বন্দিশিবিরে আটকদের ওপর বিভিন্ন মেডিকেল পরীক্ষা চালায় মার্কিন নিরাপত্তারক্ষীরা। এক সাবেক গুয়ান্তানামো বন্দির এই দাবী নতুন করে বিতর্কের সৃষ্টি করেছে। তুর্কী বংশোদ্ভূত জার্মান নাগরিক মুরাদ কুরনাজ। তার দাবী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র পরিচালিত গুয়ান্তানামো বন্দিশিবিরে তার ওপর মেডিকেল পরীক্ষা করা হয়েছিল। শুধু তিনি নন, আরও অনেক বন্দি এই পরীক্ষার শিকার হন। কুরনাজ জানিয়েছেন, কোন কারণ ব্যাখ্যা না করেই তার শরীরে ইনজেকশন দেয়া হ’ত। এতে করে তার আরও বেশী সমস্যা হ’ত। অনেক সময় প্রচন্ড শ্বাসকষ্ট দেখা দিত। এমনকি অনেক বন্দিকে ম্যালেরিয়া প্রতিরোধক দেয়া হয়েছিল। অথচ বন্দিশিবিরে ম্যালেরিয়ার কোন প্রকোপ ছিল না। কুরনাজের মতে, এভাবে বিনা প্রয়োজনে ঔষুধ প্রদানের প্রতিক্রিয়ায় অনেক বন্দি বেলুনের মতো ফুলে উঠত। কারো কারো সারা শরীর ঘামে ভিজে যেত। বন্দিদের ধারণা নতুন উৎপাদিত বিভিন্ন ঔষধ তাদের ওপরে প্রয়োগ করে পরীক্ষা করত মার্কিন নিরাপত্তারক্ষীরা।
ভারত বিশ্বের সবচেয়ে বড় অস্ত্র আমদানীকারক দেশ
ভারত এখন বিশ্বের সবচেয়ে বড় অস্ত্র আমদানীকারক দেশ। অস্ত্র প্রতিযোগিতার বাজারে ভারত প্রতি বছর বিশ্বের মোট অস্ত্রের শতকরা নয় ভাগ কিনে নেয়। ২০০৬ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত এ ধারা অব্যাহত রয়েছে। ‘স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউট’ এসব তথ্য দিয়েছে। দেশটি গত দুই বছরের চেয়ে এবার সামরিক বাজেট শতকরা ৪০ ভাগ বাড়িয়েছে এবং প্রতি বছর চার হাযার কোটি ডলারের অস্ত্র কেনার জন্য অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে। ভারতের মোট অস্ত্রের ৭০ ভাগ আমদানী করা। আর আমদানী করা মোট অস্ত্রের শতকরা ৮২ ভাগ আসে রাশিয়া থেকে। এদিকে পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের হিসাব অনুযায়ী, বিশ্বে অস্ত্র রফতানির ক্ষেত্রে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে। এর পরেই রয়েছে রাশিয়া ও জার্মানী।
বিশ্বে প্রতি ১০টির মধ্যে একটি পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র ভূমিকম্প ঝুঁকির মধ্যে
বিশ্বের প্রতি ১০টির মধ্যে একটির বেশী পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র ভূমিকম্প ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। ব্রিটিশ দৈনিক ‘দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট’ একথা জানিয়েছে। জাপানে নযীরবিহীন ভূমিকম্প ও সুনামীতে ফুকুশিমা  পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির পরিপ্রেক্ষিতে এ বিষয়ে গবেষণা চালানো হয়। গবেষণার ফলাফলে বলা হয়েছে, জাপান, তাইওয়ান, চীন, দক্ষিণ কোরিয়া, ভারত,  পাকিস্তান এবং যুক্তরাষ্ট্রের ৭৬টি পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র সুনামির ঝুঁকিপূর্ণ উপকূলীয় অঞ্চলে রয়েছে। এতে আরো বলা হয়েছে, বিশ্বের ৪৪২টি পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রতি দশটির মধ্যে একটির বেশী কেন্দ্র ভূমিকম্প ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।
৯টি দেশ থেকে ধর্ম হারিয়ে যাবে
গবেষকদের মতে পৃথিবীর ৯টি দেশ থেকে ধর্ম ধীরে ধীরে বিলুপ্ত হয়ে যাবে। দেশগুলো হচ্ছে- অস্ট্রেলিয়া, অস্ট্রিয়া, কানাডা, চেক প্রজাতন্ত্র, ফিনল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস, নিউজিল্যান্ড এবং সুইজারল্যান্ড। যুক্তরাষ্ট্রের ডালাসে আমেরিকান ফিজিক্যাল সোসাইটির বৈঠকে এই গবেষণা জরিপটি উপস্থাপন করা হয়। এতে দেখা যায়, ঐ দেশগুলোয় ক্রমবর্ধমান হারে ধর্মবিমুখতা বাড়ছে। গবেষক দলের গাণিতিক মডেল ধর্মবিষয়ক প্রশ্নের উত্তর এবং এর পেছনের আর্থ-সামাজিক কারণ খোঁজার চেষ্টা করেছে। তারা এই দেশগুলোই অন্তত ১০০ বছর আগের তথ্য-উপাত্তও পর্যালোচনা করেছে। গবেষক দলের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের নর্থওয়েষ্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ড্যানিয়েল আব্রামসের একটি দল কাজ করেছে। গবেষণার সংঙ্গে জড়িত অ্যারিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ের রিচার্ড উইনার বলেন, বিশ্বের আধুনিক গণতান্ত্রিক দেশগুলোয় ধর্মের সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই- এভাবেই মানুষ নিজেদের ভাবতে পসন্দ করে। এই গবেষণায় দেখা যায়, নেদারল্যান্ডসে ধর্মবিমুখ মানুষের সংখ্যা প্রায় ৪০ ভাগ আর চেক প্রজাতন্ত্রে এই সংখ্যা প্রায় ৬০ ভাগ।
ধর্ষণের দায়ে ইসরাঈলের সাবেক প্রেসিডেন্ট মোশের ৭ বছরের কারাদন্ড
ধর্ষণের মামলায় ইসরাঈলের সাবেক প্রেসিডেন্ট মোশে কাটসভকে দুই মেয়াদে ৭ বছরের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় ৩৫ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট চিৎকার করে বলেন, এই রায়ে মিথ্যার জয় হয়েছে। এছাড়া আদালত তাকে ২৮ হাজার মার্কিন ডলার আর্থিক জরিমানা করেছেন। অনাদায়ে আরো দুই বছরের কারাভোগের আদেশ  দেওয়া হয়েছে। মোশে কাটসভ ৪৫ দিনের মধ্যে এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবেন। গত বছর ডিসেম্বরে তাঁর বিরুদ্ধে আনীত ধর্ষণ, যৌন হয়রানি, বিচার কাজে বাধা দেওয়াসহ বেশ কয়েকটি অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।
যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমানদের বিরুদ্ধে বৈষম্য বেড়েছে
মার্কিন সিনেটের এক শুনানীতে কয়েকজন কংগ্রেস প্রতিনিধি স্বীকার করেছেন যে, সে দেশে মুসলমানদের নাগরিক অধিকার বিপদাপন্ন হয়েছে। তারা আরও বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী মুসলমানদের বিরুদ্ধে বৈষম্য ও তাদের স্বাধীনতার অধিকার লংঘন অব্যাহত রয়েছে। শুনানির আয়োজক সিনেটর ডিক দুর্বিন বলেছেন, ১১ সেপ্টেম্বর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার পর মুসলিম জনগোষ্ঠী এবং আরব ও দক্ষিণ এশিয়ার নাগরিকদের বিরুদ্ধে যে বৈষম্য ও দুর্ব্যবহারের জোয়ার শুরু হয়েছিল এখনও তা অব্যাহত রয়েছে। মার্কিন বিচার বিভাগের সহকারী এটর্নি জেনারেল টমাস পেরেয এ বৈঠকে বলেছেন, মুসলমানদের বিরুদ্ধে সহিংসতা অব্যাহত রয়েছে এবং এ বিষয়ে তদন্ত হওয়া উচিত।

মুসলিম জাহান

উত্তাল ইয়েমেন : প্রেসিডেন্ট ছালেহকে বিরোধীদের আল্টিমেটাম
ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট আলী আব্দুল্লাহ ছালেহকে ক্ষমতা থেকে হটাতে ইয়েমেনে আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে। প্রেসিডেন্ট ছালেহ ১৯৭৮ সাল থেকে অদ্যাবধি ৩২ বছর ক্ষমতায় আসীন আছেন। দুর্নীতি, অদক্ষতা, মতপ্রকাশের স্বাধীনতায় বাধা ও রাষ্ট্রীয় নির্যাতনের প্রতিবাদে পুরো ইয়েমেনে জানুয়ারীর দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে বিক্ষোভ-আন্দোলন চলছে। নগরীর এডেনে এক তরুণ শরীরে আগুন লাগিয়ে দিলে আগুনে ঘৃতাহুতির মতো আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে দেশময়। অবস্থা বেগতিক দেখে নিজের ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতে সেনাবাহিনীর বেতন-ভাতা বৃদ্ধি, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যে সরকারী ভাতা বাড়ানোর মতো পদক্ষেপও ছালেহ নেন। কিন্তু তাতেও আন্দোলনকারীরা শান্ত না হলে ব্যর্থ-মনোরথ প্রেসিডেন্ট ছালেহ ঘোষণা দিতে বাধ্য হন যে, পরবর্তী নির্বাচনে তিনি আর রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী হবেন না। কিন্তু তাতেও সায় মেলেনি বিরোধীদের। উল্টো ‘শেষ সুযোগ’ হিসাবে বিরোধীদলগুলোর জোট ‘জয়েন্ট মিটিং পার্টিস’ (জেএমপি) দেশটির  ভাইস  প্রেসিডেন্ট  আবদ্রাবুহ  মানছূর  হাদির কাছে শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রস্তাব দিয়েছে। প্রেসিডেন্টের ক্ষমতা হস্তান্তরের পর ভাইস প্রেসিডেন্ট দ্রুত জাতীয় নিরাপত্তাবাহিনী, কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী ও রিপাবলিকান গার্ড ফোর্সকে পুনর্গঠন করার উদ্যোগ নেবেন। এদিকে সর্বশেষ প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে, বিরোধীরা ছালেহকে ক্ষমতা ছাড়ার জন্য দুই সপ্তাহের আল্টিমেটাম দিয়েছে। এদিকে সরকারী নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে বিরোধীদের সহিংসতায় এ পর্যন্ত দেড়শ’র অধিক নিহত এবং হাযার হাযার আহত হয়েছে। বেশকিছু সরকারী কর্মকর্তা, কূটনৈতিক, নিরাপত্তাবাহিনী ও সেনাসদস্য পদত্যাগ করে বিদ্রোহীদের সাথে যোগ দেয়ায় এবং উপজাতীয় গোত্রগুলো তাঁর প্রতি সমর্থন প্রত্যাহার করায় ছালেহ দু’চোখে ঘোর অমানিশা দেখছেন।
বাংলাদেশী এক যুবকের প্রচেষ্টায় মালয়েশিয়ায় চারজনের ইসলাম গ্রহণ
বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ার আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যাওয়া বগুড়া শহরের খান্দার এলাকার জনাব মুহাম্মাদ মাহবূবুর রহমানের পুত্র জাহিদের প্রচেষ্টায় চারজন অমুসলিম সম্প্রতি ইসলাম গ্রহণ করেছেন। এঁরা হ’লেন- ডেভিড (৩৪ বছর বয়স্ক এই ইতালীয় নাগরিক পূর্বে ক্যাথলিক ছিলেন), স্টেলা (২৫ বছর বয়স্ক এই চীনা মহিলা বৌদ্ধ ছিলেন), নোং ফং (২৭ বছর বয়স্ক ভিয়েতনামী এই মহিলাও বৌদ্ধ ছিলেন) এবং যোশেফ (৩০ বছর বয়স্ক বার্বাডোজের এই নাগরিক খৃষ্টান ছিলেন)। এরা বিভিন্ন কোম্পানীতে চাকরি করেন। জাহিদ তাদেরকে কোনটা ভাল কোনটা মন্দ তা বুঝিয়ে দিতেন। তাদের সাথে আলাপের সময় প্রাসঙ্গিক কোন হাদীছ জানা থাকলে তা উল্লেখ করতেন। কুরআন মাজীদ বুঝার জন্য তিনি তাদেরকে কুরআনের ইংরেজী অনুবাদ পড়তে দেন। অবশেষে জাহিদের আড়াই বছরের প্রচেষ্টায় তাঁরা ইসলামের সুশীতল ছায়াতলে আশ্রয় গ্রহণ করেন। ফালিল্লাহিল হামদ। উল্লেখ্য, মাহবূবুর রহমান ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর একজন শুভাকাঙ্ক্ষী।

বিজ্ঞান ও বিস্ময়

সেকেন্ডেই চার্জ হবে মোবাইল আর মিনিটে ল্যাপটপ
সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকরা মোবাইল ফোনের ব্যাটারিতে চার্জ দেওয়ার এমন একটি পদ্ধতি উদ্ভাবন করেন যার সাহায্যে সেকেন্ডেই চার্জ সম্পন্ন হবে। থ্রিডি ন্যানো স্ট্রাকচারে নকশা করা এই চার্জিং পদ্ধতি ব্যবহার করে মিনিটের মধ্যেই ল্যাপটপেও চার্জ করা যাবে। থ্রিডি ন্যানো স্ট্রাকচারের নকশা করেন ইউনির্ভাসিটি অব ইলিনয়ের গবেষকরা। তাঁরা জানান, এই প্রযুক্তির মাধ্যমে সার্জারির জন্য প্রয়োজনীয় উচ্চশক্তির লেজার এবং ডিফেব্রিলেটরও চার্জ করা যাবে। এর ফলে অপারেশন চলাকালেও চার্জ নেওয়া যাবে। গবেষক ব্রাউন জানান, ব্যাটারিতে চার্জ দেওয়ার এই পদ্ধতিটি ব্যাটারিতে চার্জ ধরে রাখতে ক্যাপাসিটরের মতো কাজ করতে পারবে। গবেষকদের উদ্ভাবিত এই ইলেকট্রোড পদ্ধতিটি ১০ থেকে ১০০ গুণ দ্রুত চার্জ করতে পারে। জানা গেছে, বর্তমানে প্রচলিত সব ধরনের ডিভাইসেই এই চার্জিং পদ্ধতি ব্যবহার করা যাবে।
সবুজ হয়ে উঠছে অ্যান্টার্কটিকা
সবুজ থেকে সবুজতর হচ্ছে অ্যান্টার্কটিকা। দক্ষিণ মেরুর বরফ ছাওয়া ধবল যমীনে দিন দিন বাড়ছে সবুজের এই বিস্তৃতি। নতুন এক গবেষণার ভিত্তিতে এই তথ্য তুলে ধরে একদল বিজ্ঞানী দাবী করেছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে বৈশ্বিক উষ্ণতা বাড়ার কারণে বদলে যাচ্ছে দক্ষিণ মেরুর হিমেল রাজ্যের পরিবেশ। যুক্তরাজ্য ও অষ্ট্রেলীয় বিজ্ঞানীরা এই গবেষণা চালান। বিজ্ঞানীদের দেয়া তথ্যমতে, বড় গাছপালা বলতে যা বোঝায় তার অস্তিত্ব এখানে নেই। তবে ফুল হয় এমন দু’টি উদ্ভিদ গত ৫০ বছরে বেশ ছড়িয়ে পড়েছে। এগুলো হচ্ছে ‘অ্যান্টার্কটিক হেয়ারগ্রাস’ নামে এক ধরনের দুর্বাঘাস। অন্যটি ‘অ্যান্টার্কটিক পার্লর্ত্তা’, যা এক ধরনের ছোটখাটো ঝুপালো গাছ। অ্যান্টার্কটিকার পশ্চিমাঞ্চলীয় উপদ্বীপ ও আশপাশের দ্বীপে রয়েছে এই উদ্ভিদ দু’টি। এর মধ্যে হেয়ারগ্রাসের বিস্তার বেশ দ্রুত ঘটছে বলে বিজ্ঞানীদের দাবী।
নিয়মিত পরীক্ষায় স্মৃতিশক্তি বাড়ে
সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকরা জানিয়েছেন, নিয়মিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করলে মস্তিষ্কের ক্ষমতা ও স্মৃতিশক্তি বেড়ে যায়। গবেষকরা আরো জানিয়েছেন, নিয়মিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণের ফলে মানসিক শক্তি বা ‘মেডিয়েটরস’ বেড়ে যায়। এই মেডিয়েটরস বা মানসিক শক্তি কেবল পড়াশোনার মাধ্যমে অর্জন করা সম্ভব হয়। আর তাই নিয়মিত পরীক্ষা দিলে স্মৃতিশক্তি দীর্ঘ সময়ের জন্য মস্তিষ্কে গেঁথে যায়। কেন্ট স্টেট ইউনিভার্সিটির মনোবিদ ড. ক্যাথরিন রওসন জানিয়েছেন, পরীক্ষার অনুশীলনের ফলে স্মৃতি হাতড়ে কোন কিছু খুঁজে বের করার মানসিকতা তৈরী হয় যা পরবর্তীতে আবারো মনে করা সম্ভব হয়।
বিদ্যুৎ উৎপাদিত হবে কৃত্রিম পাতা দিয়ে
সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকরা বিশ্বের প্রথম কৃত্রিম পাতা তৈরি করছেন যা বাস্তবভিত্তিক কাজে লাগবে। বড় ধরনের পোকার কার্ড আকারের এই কৃত্রিম পাতাকেই বলা হচ্ছে পরবর্তী প্রজন্মের সৌরকোষ। ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি (এমআইটি)-এর গবেষকদের উদ্ভাবিত এই কৃত্রিম পাতা সালোকসংশ্লেষণ প্রক্রিয়ার মতোই কাজ করে। এই প্রক্রিয়ায় সূর্যশক্তিকে কাজে লাগিয়ে শক্তি উৎপাদন করা যায়। গবেষক ড্যানিয়েল নোসেরা জানিয়েছেন, কম খরচে বিদ্যুৎ উৎপাদনের ক্ষেত্রে এটি একটি উল্লেখযোগ্য উদ্ভাবন, যা গরীব এবং উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য কাজে লাগবে।