সংগঠন সংবাদ

আন্দোলন 

তাবলী সভা

সমসপুর, বাগমারা, রাজশাহী ২৫ জানুয়ারী শনিবার : অদ্য বাদ মাগরিব সমসপুর আহলেহাদীছ জামে মসজিদে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ ও ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর উদ্যোগে এক তাবলীগী সভা অনুষ্ঠিত হয়। অত্র মসজিদ কমিটির সভাপতি জনাব আব্দুল কুদ্দূস-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক আব্দুল হালীম বিন ইলিয়াস। অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা পেশ করেন ‘আন্দোলন’-এর রাজশাহী-দক্ষিণ সাংগঠনিক যেলার সাধারণ সম্পাদক মাষ্টার সিরাজুল ইসলাম, ‘যুবসংঘ’ বাগমারা উপযেলার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা যিল্লুর রহমান ও সমসপুর হাফেযিয়া মাদরাসার প্রধান শিক্ষক মাওলানা বেলালুদ্দীন প্রমুখ।

তানোর, রাজশাহী ১১ জানুয়ারী শনিবার : অদ্য বাদ যোহর গুবিরপাড়া আহলেহাদীছ জামে মসজিদে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ রাজশাহী-উত্তর সাংগঠনিক যেলার উদ্যোগে এক তাবলীগী সভা অনুষ্ঠিত হয়। যেলা ‘আন্দালন’-এর অর্থ সম্পাদক মুহাম্মাদ আবুল কালাম আযাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত তাবলীগী সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় দফতর ও যুববিষয়ক সম্পাদক এবং যেলা ‘আন্দালন’-এর সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আমীনুল ইসলাম।

বহরমপুর, রাজশাহী ১৪ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার : অদ্য বাদ মাগরিব ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ রাজশাহী মহানগরীর উদ্যোগে নগরীর বহরমপুর আহলেহাদীছ জামে মসজিদে এক তাবলীগী সভা অনুষ্ঠিত হয়। শাখা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব এনামুল হক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক ও মাসিক আত-তাহরীক সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য পেশ করেন মহানগর ‘আন্দোলন’-এর সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ সিরাজুল হক। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ছিলেন মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মবিনুল ইসলাম। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মহানগর ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব গিয়াছুদ্দীন, সহ-সভাপতি নাযিমুদ্দীন, অর্থ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম, প্রশিক্ষণ সম্পাদক আফযাল হোসাইন ও আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফীর শিক্ষক মাকবূল হোসাইন প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

প্রবাসী সংবাদ

বুগিজ, সিঙ্গাপুর ১ ফেব্রুয়ারী শনিবার : অদ্য সকাল ১০-টায় সিঙ্গাপুরের কেন্দ্রীয় সুলতান জামে মসজিদে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ ও ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ সিঙ্গাপুর শাখার উদ্যোগে এক তাবলীগী সভা অনুষ্ঠিত হয়। মুহাম্মাদ আব্দুল হালীম (কুমিল্লা)-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত আলোচনা সভায় বিষয় ভিত্তিক বক্তব্য পেশ করেন মুহাম্মাদ শামীম (নরসিংদী), ফেরদাউস হাসান (ময়মনসিংহ), খোরশেদ আলম (কুমিল্লা), শফীকুল ইসলাম ও রাকীবুল ইসলাম (মাগুরা), এমদাদ বিন মুয্যাম্মিল হক (গাইবান্ধা) প্রমুখ। অনুষ্ঠানে কুরআন তেলাওয়াত করেন হাফেয মুহাম্মাদ সাইফুল ইসলাম (ময়মনসিংহ) ও ইসলামী জাগরণী পরিবেশন করেন শহীদুল ইসলাম (দিনাজপুর), জাবেদ শেখ (কুমিল্লা) ও আতাউর রহমান (সিরাজগঞ্জ)। অনুষ্ঠানে সঞ্চালক ছিলেন মাযহারুল ইসলাম (পটুয়াখালী)। উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বিভিন্ন যেলার ৪০ জন সিঙ্গাপুর প্রবাসী ভাই ছহীহ আক্বীদা গ্রহণ করে আহলেহাদীছ হয়ে যান। ফালিল্লাহিল হাম্দ

দাম্মাম, সঊদী আরব ৪ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার : অদ্য বাদ এশা সঊদী আরবের দাম্মাম শহরের একটি হোটেলে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ দাম্মাম শাখার উদ্যোগে এক তাবলীগী সভা অনুষ্ঠিত হয়। দাম্মাম শাখা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব আব্দুল খালেক (নাটোর)-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত আলোচনা সভায় বাংলাদেশ থেকে মেবাইলে বক্তব্য পেশ করেন ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক ও মাসিক আত-তাহরীক সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য পেশ করেন শাখা ‘আন্দোলন’-এর সহ-সভাপতি যহীরুদ্দীন (কিশোরগঞ্জ)। অনুষ্ঠানে সঞ্চালক ছিলেন শাখা ‘আন্দোলন’-এর সাহিত্য ও পাঠাগার সম্পাদক যহীর বিন শামসুল ইসলাম।

শীতবস্ত্র বিতরণ

রাজশাহী ১৫ জানুয়ারী বুধবার : অদ্য বাদ আছর ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ রাজশাহী মহানগরীর উদ্যোগে নগরীর নওদাপাড়া, মহলদারপাড়া, কালুর মোড়, ভুগরইল, তালপুকুর পাড়, খিরশীনটিকর সহ বিভিন্ন এলাকার অসহায়, দরিদ্র শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল ও শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। এ সময়ে মহানগর ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মুহাম্মাদ গিয়াছুদ্দীন ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মুহাম্মাদ মুবীনুল ইসলাম সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এতদ্ব্যতীত স্থানীয় গরীব মহিলাদের মধ্যে এবং বগুড়ার মেন্দীপুর, বৃ-কুষ্টিয়া ও সাবগ্রাম মাদরাসার ইয়াতীমদের মধ্যে এবং জামালপুর ও লালমণিরহাট যেলার নদীভাঙ্গা এলাকায় দূর্গতদের মধ্যে কম্বল বিতরণ করা হয়।

সাপ্তাহিক তা‘লীমী বৈঠক

‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’, রাজশাহী মহানগরীর উদ্যোগে ‘আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফী নওদাপাড়া, রাজশাহী’-র পূর্বপার্শ্বস্থ দোতালার হলরুমে প্রতি মঙ্গলবার বাদ মাগরিব নিয়মিতভাবে তা‘লীমী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। মহানগরীর বিভিন্ন শাখা ও এলাকা থেকে ‘আন্দোলন’ এর কর্মী-সুধী ও সাধারণ মুছল্লীগণ তা‘লীমী বৈঠকে যোগদান করেন। বৈঠকের শুরুতে পবিত্র কুরআন পাঠ ও তাজবীদ শিক্ষা ক্লাস, তারপর দো’আ শিক্ষা, বিষয় ভিত্তিক বক্তব্য এবং সবশেষ প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। মুহতারাম আমীরে জামা‘আত ও ‘আন্দোলন-এর নেতৃবৃন্দ সহ অন্যান্য ওলামায়ে কেরাম উক্ত তা‘লীমী বৈঠকে নিয়মিতভাবে বক্তব্য পেশ করেন, যা ইন্টারনেটে প্রচারিত হয়ে থাকে।

যুবসংঘ

সাইধারা, বাগমারা, রাজশাহী ২৪ জানুয়ারী শুক্রবার : অদ্য বাদ মাগরিব যেলার বাগমারা থানাধীন সাইধারা পশ্চিমপাড়া আহলেহাদীছ জামে মসজিদে ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ রাজশাহী উত্তর সাংগঠনিক যেলার উদ্যোগে এক তাবলীগী সভা অনুষ্ঠিত হয়। সাইধারা পূর্বপাড়া আহলেহাদীছ জামে মসজিদ শাখা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি ও লালইচ আলিম মাদরাসার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা আব্দুস সাত্তারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক আব্দুল হালীম বিন ইলিয়াস। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’ রাজশাহী-উত্তর সাংগঠনিক যেলার সহ-সভাপতি ও বাগমারা উপযেলার সভাপতি ডা. মুহাম্মাদ মুহসিন।

নওদাপাড়া, রাজশাহী ০৭ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার : অদ্য সকাল ১০-টায় আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফী নওদাপাড়া রাজশাহীর পূর্ব পার্শ্বস্থ ভবনের ২য় তলায় ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ রাজশাহী সরকারী কলেজ শাখার উদ্যোগে এক তাবলীগী সভা অনুষ্ঠিত হয়। কলেজ শাখা ‘যুবসংঘে’র সভাপতি আবুল হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দালন’-এর কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষণ সম্পাদক ডঃ মুহাম্মাদ কাবীরুল ইসলাম। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ ও অন্যান্য দায়িত্বশীল বৃন্দ।

মর্মান্তি

(১) ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ বগুড়া যেলার দুপচাচিয়া উপযেলা সভাপতি জনাব নযরুল ইসলামের পাঁচ বছরের শিশু সন্তান স্থানীয় ডিএস কেজি মাদরাসার শিশু শ্রেণীর ছাত্র আব্দুর রহমানকে গত ৭ জানুয়ারী’১৪ রোজ মঙ্গলবার দুপুর ২-টার সময় থানা সদরের সরদারপাড়াস্থ তাদের ভাড়া বাসার পার্শ্ববর্তী দোকান থেকে অপহরণ করা হয়। দোকানে কিছু কেনার জন্য গেলে সেখান থেকে সে আর ফিরে আসেনি। অনেক খোঁজাখুঁজি এবং এলাকায় মাইকিং করার পরও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। অতঃপর ৯ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার স্থানীয় দুপচাচিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করা হয়। ইতিমধ্যে অপহরণকারীরা মোবাইলে অপহৃত আব্দুর রহমানের পিতা নযরুল ইসলামের নিকট ছেলের জন্য ৩০,০০০/= টাকা মুক্তিপণ দাবী করে এবং প্রশাসনের সাথে কোন রকম যোগাযোগ করলে ছেলেকে হত্যা করা হবে মর্মে হুমকি দেয়। এরা অপহৃতের পিতার নিকট থেকে ‘বিকাশ’-এর মাধ্যমে তিন দফায় ৯৫০০ টাকাও গ্রহণ করে। সন্তানকে ফিরে পাওয়ার এক বুক আশা নিয়ে নযরুল ইসলাম বিষয়টি প্রশাসনকে না জানিয়ে গোপন রাখেন। কেননা একই রকম ঘটনায় পার্শ্ববর্তী একজনের সন্তানকে অপহরণকারীরা ইতিপূর্বে হত্যা করেছে। কিন্তু অত্যন্ত মর্মান্তিক ও বেদনাদায়ক যে, জীবিত সন্তানকে ফিরে পাওয়ার পরিবর্তে নযরুল ইসলাম তার নয়নের পুত্তলির মৃত অর্ধগলিত লাশ ফিরে পান। গত ৯ ফেব্রুয়ারী রবিবার সন্ধ্যার সময় অপহরণের ১ মাস ২ দিন পর দুপচাচিয়া থানা সদরের মহিলা ডিগ্রী কলেজ সংলগ্ন একটি পরিত্যক্ত চাতালের শ্রমিকদের ঘর হতে পুলিশ আব্দুর রহমানের অর্ধগলিত ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। অতঃপর থানায় নিয়ে যাওয়া হয় এবং ময়না তদন্তের পর ১০ ফেব্রুয়ারী দুপুরে লাশ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়। এ বিষয়ে দুপচাচিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। যার নং ২ (২)/২০১৪। অতঃপর বাদ আছর দুপচাচিয়া থেকে ৯ কিলোমিটার উত্তরে তার নিজ গ্রাম কোলগ্রামে মৃতের পিতা নযরুল ইসলামের ইমামতিতে তার জানাযার ছালাত অনুষ্ঠিত হয় এবং পারিবারিক গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

যেলা ও উপযেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ বিপুল সংখ্যক মুছল্লী তার জানাযার ছালাতে অংশগ্রহণ করেন এবং শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ডঃ মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব ও কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক ডঃ মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন মোবাইল ফোনে শোকাহত পিতা নযরুল ইসলামকে সান্ত্বনা প্রদান করেন এবং বিপদে ধৈর্যধারণের উপদেশ দেন।

সর্বশেষ প্রাপ্ত খবরে জানা যায় গত ১৭ ফেব্রুয়ারী দিবাগত রাতে ঢাকার শ্যামপুর এলাকা থেকে শিশু আব্দুর রহমান হত্যার সাথে জড়িত ৩ জন আসামীকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এরা হচেছ- দুপচাচিয়া উপযেলা সদরের সরদারপাড়ার জালালুদ্দীন ওরফে জালু মিয়ার পুত্র রণি (১৯), একই পাড়ার প্রান্তস মহন্থের পুত্র কাকণ মহন্ত (১৮) ও কালীতলার ময়েজ সরদারের পুত্র শাহাদত সরদার (১৮)। ১৮ ফেব্রুয়ারী বগুড়ার পুলিশ সুপারের নিকট আসামীরা হত্যার দায় স্বীকার করে বলেছে যে, তারা চকলেট দিয়ে ভুলিয়ে তাকে নিয়ে যায় এবং ঘুমের বড়ি খাইয়ে হত্যা করে। ১৯ ফেব্রুয়ারী স্থানীয় ও জাতীয় বিভিন্ন দৈনিকে এ বিষয়ে রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে।

(২) গত ২৫ জানুয়ারী শনিবার রাত সাড়ে ৮-টায় জয়পুরহাট যেলার সদর থানাধীন পলিকাদোয়া গ্রামের মৃত হাফীযুর রহমানের একমাত্র পুত্র যেলা ‘যুবসংঘ’-এর সাবেক সাহিত্য ও পাঠাগার সম্পাদক আবু হাসান (২৬)-কে ঐ গ্রামের অদূরে ঈদগাহ মাঠের পার্শ্বে আলুর জমিতে যবেহ করে হত্যা করেছে দুবৃত্তরা। (ইন্না লিল্লা-হি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেঊন)। ঘটনার দিন সন্ধ্যার পর আবু হাসান মটর সাইকেলে তেল নিয়ে জয়পুরহাট থেকে বাড়ী ফিরছিল। পথিমধ্যে দুর্বৃত্তরা রাস্তায় রশি টাঙ্গিয়ে তার গতিরোধ করে। অতঃপর পার্শ্চবর্তী আলুর জমিতে নিয়ে তাকে নির্মমভাবে জবাই করে মটর সাইকেলটি ছিনিয়ে নেয়। উল্লেখ্য যে, আবু হাসান স্থানীয় চৌমুহনী বাজারে হার্ডওয়ারের ব্যবসা করত। এ ব্যাপারে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। পরদিন বিকাল ৪-টায় তার জানাযার ছালাত অনুষ্ঠিত হয়। জানাযার ছালাতে ইমামতি করেন বানিয়াপাড়া মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা আবু তালেব। অতঃপর পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব মাহফূযুর রহমান, প্রচার সম্পাদক মুহাম্মাদ শফীকুল ইসলাম, যেলা ‘যুবসংঘ’-এর সভাপতি মুহাম্মাদ আবুল কালাম, সাবেক সভাপতি মুহাম্মদ আমীনুল ইসলাম, বানিয়াপাড়া মাদরাসার অধ্যক্ষ সাঈদুর রহমান, আমদই ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম রাববানী প্রমুখ তার জানাযায় উপস্থিত ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি তার মা, স্ত্রী, ১ বোন ও এক বছরের একটি পুত্র সন্তান রেখে গেছেন।

[আমরা উক্ত মর্মান্তিক হত্যাকান্ডে যারপর নাই শোকাহত ও ব্যথিত হয়েছি। আমরা মৃতের রূহের মাগফেরাত কামনা করছি ও শোকসন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। -সম্পাদক]