সংগঠন সংবাদ

আন্দোলন

যেলা সম্মেলন : ময়মনসিংহ

হক ও বাতিলের সংগ্রামে সাহসী পদক্ষেপে এগিয়ে চলুন!

-আমীরে জামা‘আত

গফরগাঁও ৭ই এপ্রিল সোমবার : অদ্য বাদ আছর ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ ময়মনসিংহ যেলার উদ্যোগে যেলার গফরগাঁও থানাধীন সৌদিয়া বাজারে যেলা সম্মেলন’১৪ অনুষ্ঠিত হয়। স্থানীয় টুকনরেন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের ধর্মীয় শিক্ষক জনাব মাওলানা আব্দুর রাযযাক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সম্মেলনে প্রধান অতিথির ভাষণে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর মুহতারাম আমীরে জামা‘আত ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের সিনিয়র প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব জনগণের প্রতি উপরোক্ত আহবান জানান। তিনি বলেন, সুদূর অতীতে ঈসা খাঁ ও মানসিং-য়ের দ্বৈরখ যুদ্ধের স্মৃতিবাহী এই স্থানে আসতে পেরে আমরা নিজেদেরকে ধন্য মনে করছি। সেদিন যেমন তরবারির যুদ্ধে ঈসা খাঁ জিতেছিলেন, আজ তেমনি আদর্শিক যুদ্ধে আমাদেরকে জিততে হবে। সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাওলানা নূরুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক ও মাসিক আত-তাহরীক সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন, কেন্দ্রীয় মুবাল্লিগ শরীফুল ইসলাম, ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বিন হাবীব, আল-হেরা শিল্পী গোষ্ঠীর প্রধান মুহাম্মাদ শফীকুল ইসলাম, গফরগাঁও উপযেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি হাজী রমিযুদ্দীন প্রমুখ। সম্মেলনের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ছিলেন যেলা ‘আন্দোলন’-এর প্রচার সম্পাদক ক্বারী হারূনুর রশীদ। সম্মেলনে সঞ্চালক ছিলেন যেলা ‘আন্দোলন’-এর সহ-সভাপতি মাওলানা আবুল কালাম ও জামালপুর-দক্ষিণ যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি অধ্যাপক বযলুর রহমান। ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ ও গাযীপুর তিন যেলার মোহনায় অনুষ্ঠিত উক্ত যেলা সম্মেলনে প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে বিপুল সংখ্যক শ্রোতা যোগদান করেন। উল্লেখ্য যে, সম্মেলনের পোষ্টার লাগাতে গিয়ে বিদ‘আতীদের হাতে মারাত্মকভাবে আহত হয় যেলা ‘আন্দোলন’-এর প্রচার সম্পাদক ক্বারী হারূনুর রশীদের ছেলে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র আব্দুর রহমান ওসামা।

এদিন বাদ আছর হ’তে আমীরে জামা‘আত পৃথক বৈঠকে যেলা দায়িত্বশীলদের সাথে মতবিনিময় করেন। এ সময়ে তিনি যেলার সাংগঠনিক কাজের অগ্রগতির খোঁজ-খবর নেন এবং দায়িত্বশীলদেরকে যথাযথভাবে নিজ নিজ দায়িত্ব পালনের জন্য তাকীদ প্রদান করেন।

যেলা সম্মেলন : বগুড়া

ইসলামী বিচার ও সমাজ ব্যবস্থা কায়েমে ঐক্যবদ্ধ হৌন!

-আমীরে জামা‘আত

৯ই এপ্রিল বুধবার : ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ বগুড়া যেলার উদ্যোগে শহরের ঐতিহ্যবাহী আলতাফুন্নেসা খেলার মাঠে যেলা সম্মেলন’১৪ অনুষ্ঠিত হয়। যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব আব্দুর রহীমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত যেলা সম্মেলনে প্রধান অতিথির ভাষণে মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব জনগণের প্রতি উপরোক্ত আহবান জানান। তিনি বলেন, বর্তমানের বিচার ব্যবস্থা এবং দল ও প্রার্থী ভিত্তিক নেতৃত্ব নির্বাচন ব্যবস্থার পরিবর্তে প্রকৃত ইসলামী ব্যবস্থা কায়েম না হওয়া পর্যন্ত সমাজে কাংখিত পরিবর্তন সম্ভব নয়। সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন ও সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিষ্টার তাকিউর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘে’র কেন্দ্রীয় সভাপতি মুযাফ্ফর বিন মুহসিন, ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় মুবাল্লিগ শরীফুল ইসলাম এবং যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র নেতৃবৃন্দ।

যেলা সম্মেলন : মেহেরপুর

চেতনার পরিবর্তন ব্যতীত সমাজের পরিবর্তন সম্ভব নয়।

-আমীরে জামা‘আত

বামুন্দি ১২ই এপ্রিল শনিবার : অদ্য বাদ আছর ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ মেহেরপুর যেলার উদ্যোগে যেলার গাংণী থানাধীন বামুন্দী দাখিল মাদরাসা ময়দানে যেলা সম্মেলন’১৪ অনুষ্ঠিত হয়। যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা মনছূরুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সম্মেলনে প্রধান অতিথির ভাষণে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ -এর মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব উপরোক্ত কথা বলেন। তিনি বলেন, কথায় কথায় বাঙালী বাঙালী বলে আর চৈত্র সংক্রান্তি, বৈশাখী মেলা, বর্ষবরণ, বর্ষাবরণ প্রভৃতি হিন্দুয়ানী উৎসবকে বাঙ্গালীর আবহমানকালের সার্বজনীন উৎসব বলে অপপ্রচার করে মুসলমানদের ঈমানী চেতনাকে ভোঁতা করে দেবার ষড়যন্ত্র চলছে। অথচ কেবলমাত্র ইসলামী চেতনাই এদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বকে টিকিয়ে রাখতে পারে। সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাওলানা নূরুল ইসলাম, ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘে’র কেন্দ্রীয় সভাপতি মুযাফ্ফর বিন মুহসিন। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আল-হেরা শিল্পী গোষ্ঠীর প্রধান মুহাম্মাদ শফীকুল ইসলাম, গাংণী উপযেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা আব্দুল মুমিন, সহ-সভাপতি ডা. আবুল কালাম আযাদ, ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুর রশীদ আখতার প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য যে, বাদ মাগরিব হ’তে রাত ১০-টা পর্যন্ত আমীরে জামা‘আত মেহেরপুর এবং পার্শ্ববর্তী যেলা কুষ্টিয়া-পূর্ব ও পশ্চিম এবং চূয়াডাঙ্গা যেলার দায়িত্বশীল ভাইদের সাথে মতবিনিময় সভায় মিলিত হন। এ সময় তিনি সংশ্লিষ্ট যেলা সমূহের দাওয়াতী কাজের অগ্রগতির খোঁজ-খবর নেন। তিনি সকলকে স্ব স্ব দায়িত্বের প্রতি সজাগ থেকে স্রেফ আখেরাতে মুক্তির আশায় আহলেহাদীছ আন্দোলনের এই অভ্রান্ত দাওয়াত সমাজের সর্বত্র পৌঁছে দেয়ার উদাত্ত আহবান জানান।

যেলা সম্মেলন : দিনাজপুর-পূর্ব

সীমান্তে নিয়মিত বাংলাদেশী হত্যার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান!

-আমীরে জামা‘আত

বিরামপুর ১৮ই এপ্রিল বুধবার : ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ দিনাজপুর-পূর্ব সাংগঠনিক যেলার উদ্যোগে যেলার বিরামপুর থানাধীন ভারতের সীমান্তবর্তী কাটলা ডিগ্রী কলেজ ময়দানে যেলা সম্মেলন’১৪ অনুষ্ঠিত হয়। যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা আব্দুল ওয়াহ্হাব শাহ-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সম্মেলনে প্রধান অতিথির ভাষণে মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব সরকারের প্রতি উপরোক্ত আহবান জানান। তিনি বলেন, আধিপত্যবাদী শক্তির হিংস্র থাবা হ’তে দেশের প্রতি ইঞ্চি মাটির স্বাধীনতা রক্ষা ও মানুষের জান-মাল ও ইযযত রক্ষা করা আমাদের ঈমানী দায়িত্ব। এ দায়িত্ব পালনে সাহসী পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য তিনি সরকার ও জনগণের প্রতি আহবান জানান। সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় মুবাল্লিগ শরীফুল ইসলাম, ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাবেক সভাপতি মাওলনা আমানুল্লাহ বিন ইসমাঈল, জয়পুরহাট যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাহফূযুর রহমান, নওগাঁ যেলার মান্দা উপযেলা ‘আন্দোলন’-এর সহ-সভাপতি আফযাল হোসাইন। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ছিলেন, যেলা ‘আন্দোলন’-এর প্রচার সম্পাদক আব্দুল ওয়ারেছ ও কাটলা শাখা ‘আন্দোলন’-এর সদস্য আব্দুল আযীয।

উল্লেখ্য যে, আমীরে জামা‘আত তাঁর বক্তব্যের পরে দিনাজপুর-পূর্ব ও পশ্চিম যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘ’-এর দায়িত্বশীলদের নিয়ে বৈঠক করেন। তিনি উভয় যেলার ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘে’র কর্মতৎপরতা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চান। এ সময়ে তিনি সমাজ সংস্কারে দাওয়াতের গুরুত্ব তুলে ধরে দায়িত্বশীলদেরকে নিয়মিতভাবে দাওয়াতী কাজে মনোনিবেশ করার আহবান জানান।

যেলা সম্মেলন : রংপুর

পদ্মা ও তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা আদায়ে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করুন!

-সরকারের প্রতি আমীরে জামা‘আত

২০শে এপ্রিল রবিবার : ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ রংপুর যেলার উদ্যোগে নগরীর কৈলাশ রঞ্জন হাইস্কুল ময়দানে যেলা সম্মেলন’১৪ অনুষ্ঠিত হয়। এডভোকেট ইলিয়াস আহমাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সম্মেলনে প্রধান অতিথির ভাষণে মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব সরকারের প্রতি উপরোক্ত দাবী জানান। তিনি বলেন, উজানের দেশ হওয়ার কারণে ভারতের উচিৎ ছিল ভাটির দেশের পানির অধিকার নিশ্চিত করা। কিন্তু তারা তার বিপরীতটা করেছে। বিগত ৪২ বছর ধরে তারা কেবল মিথ্যা আশ্বাস দিচ্ছে। অতএব সব রাখ-ঢাক ছেড়ে ১৬ কোটি মানুষের পানির অধিকার আদায়ের জন্য অনতিবিলম্বে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করার কোন বিকল্প নেই। এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার জন্য তিনি সরকারের প্রতি আহবান জানান। উল্লেখ্য যে, উক্ত মর্মে আমীরে জামা‘আতের বিবৃতি ২০শে এপ্রিল দৈনিক ইনকিলাবে প্রকাশিত হয়।

সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন, কেন্দ্রীয় মুবাল্লিগ শরীফুল ইসলাম, ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাবেক সভাপতি মাওলানা আমানুল্লাহ বিন ইসমাঈল, আল-হেরা শিল্পী গোষ্ঠীর প্রধান শফীকুল ইসলাম, যেলা ‘যুবসংঘে’র প্রশিক্ষণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল-মাহমূদ, মুহাম্মাদিয়া মাদরাসা হারাগাছের শিক্ষক যুলকারনাইন, রাশেদুল ইসলাম (পীরগঞ্জ) প্রমুখ। সম্মেলনে স্বাগত ভাষণ পেশ করেন যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব খায়রুল আযাদ। অনুষ্ঠানে সঞ্চালক ছিলেন  যেলা ‘যুবসংঘে’র সভাপতি শিহাবুদ্দীন আহমাদ।

উল্লেখ্য যে, আমীরে জামা‘আত তাঁর বক্তব্য শেষ করে পার্শ্ববর্তী শালবন মিস্ত্রিপাড়া আহলেহাদীছ জামে মসজিদে যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘ’-এর দায়িত্বশীলদের নিয়ে বৈঠকে মিলিত হন। এ সময়ে তিনি যেলায় উভয় সংগঠনের কর্মতৎপরতা সম্পর্কে বিস্তারিত খোঁজ-খবর নেন এবং দায়িত্বশীলদের আখেরাতে জবাবদিহিতার স্বার্থে দ্বীনী কাজে অধিক সময় দেয়ার আহবান জানান।

যেলা সম্মেলন : রাজশাহী-দক্ষিণ

সবকিছু ত্যাগের বিনিময়ে জান্নাতের পথে এগিয়ে চলুন!

-আমীরে জামা‘আত

২৩শে এপ্রিল বুধবার : ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ রাজশাহী-দক্ষিণ সাংগঠনিক যেলার উদ্যোগে যেলার বাগমারা থানাধীন ভবানীগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী হ্যালিপ্যাড ময়দানে যেলা সম্মেলন’১৪ অনুষ্ঠিত হয়।  যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি ডা. ইদরীস আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সম্মেলনে প্রধান অতিথির ভাষণে মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব জনগণের প্রতি উপরোক্ত আহবান জানান। তিনি বলেন, এই ময়দানে সম্প্রতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও পরে মহামান্য প্রেসিডেন্টের আগমন ঘটেছিল। তারা আপনাদেরকে দুনিয়াবী সমৃদ্ধির আশ্বাসবাণী শুনিয়ে গেছেন। কিন্তু আমরা আপনাদেরকে জান্নাতের সুসংবাদ শুনাতে চাই। আসুন! আমরা পবিত্র কুরআন ও ছহীহ হাদীছের আলোকে জীবন গড়ি এবং ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন’-এর সাথে জামা‘আতবদ্ধ হয়ে সমাজ সংস্কারের ব্রতী হই।

সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন, কেন্দ্রীয় মুবাল্লিগ শরীফুল ইসলাম, ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাবেক সভাপতি মাওলানা আমানুল্লাহ বিন ইসমাঈল, রাজশাহী-উত্তর যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি অধ্যাপক দুররুল হুদা, ‘সোনামণি’ কেন্দ্রীয় পরিচালক আব্দুল হালীম বিন ইলিয়াস, বাগমারা উপযেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা শফীকুল ইসলাম ও বাগমারা উপযেলা ‘যুবসংঘে’র সভাপতি যিল্লুর রহমান ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সহ-সভাপতি হাজী আইয়ূব আলী সরকার প্রমুখ।

মুহতারাম আমীরে জামা‘আত বক্তব্য শেষে যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘ’-এর দায়িত্বশীলদের সাথে মতবিনিময় করেন। এসময় তিনি যেলায় সাংগঠনিক কাজের খোঁজ-খবর নেন এবং সবাইকে নিজ নিজ দায়িত্ব সঠিকভাবে পালনের আহবান জানান।

প্রবাসী সংবাদ

হায়েল দোসার, দাম্মাম, সঊদী আরব ২৪শে জানুয়ারী শুক্রবার : অদ্য ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ দাম্মাম যেলার অন্তর্গত হায়েল দোসার এলাকার উদ্যোগে এক সাধারণ সভায় অনুষ্ঠিত হয়। যেলা শাখার অর্থ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল মামুন (বরগুনা)-এর পরিচালনায় সভায় কর্মী ভাইদের উদ্দেশ্যে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য পেশ করেন দাম্মাম শাখার সহ-সভাপতি জনাব যহীরুদ্দীন (কিশোরগঞ্জ)। তিনি দাওয়াতী কাজ সর্বত্র ছড়িয়ে দিতে সকলকে আরো অগ্রসর হওয়ার আহবান জানান। উক্ত সভায় ৯ সদস্য বিশিষ্ট হায়েল দোসার এলাকা শাখা গঠন করা হয়। উক্ত শাখার দায়িত্বশীল ভাইরা হলেন, (১) সভাপতি : মীযান (লক্ষ্মীপুর) (২) সহ-সভাপতি : বরকতুল্লাহ (লক্ষ্মীপুর) (৩) সাধারণ সম্পাদক : কামাল হোসেন (লক্ষ্মীপুর) (৪) সাংগঠনিক সম্পাদক : মঈনুদ্দীন রাসেল (লক্ষ্মীপুর) (৫) অর্থ সম্পাদক : কাওছার (চাঁদপুর) (৬) প্রচার সম্পাদক: ছিদ্দীকুর রহমান (শরীয়তপুর) (৭) সাহিত্য ও পাঠাগার সম্পাদক : ইমরান (চাঁদপুর) (৮) সমাজকল্যাণ সম্পাদক : বেলাল হোসেন (লক্ষ্মীপুর) (৯) দফতর সম্পাদক : আনোয়ার হোসাইন (চাঁদপুর)।

আল-খাফজী, সউদী আরব ২৪শে মার্চ সোমবার : অদ্য বাদ এশা ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ আল-খাফজী শাখার উদ্যোগে শাখা কার্যালয়ে মাসিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। শাখা সভাপতি তোফাযযল হোসাইন (কুমিল্লা)-এর সভাপতিত্বে উক্ত বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘে’র কেন্দ্রীয় কাউন্সিল সদস্য এবং ‘যুবসংঘ’ মদীনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সেক্রেটারী মুকাররম বিন মুহসিন। বৈঠকে সাংগঠনিক কার্যাবলী গতিশীল করার ব্যাপারে গঠনমূলক আলোচনা হয়। বৈঠকে পরিষদের সহ-সভাপতি রফীকুল ইসলাম (নরসিংদী), সেক্রেটারী শামীম হোসাইন (শরীয়তপুর), প্রচার সম্পাদক হাফেয রফীক (নোয়াখালী) সহ পরিষদের সকল সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

নাদি আল-ইসলামিয়া, আল-খাফজী, সঊদী আরব ২৬শে মার্চ বুধবার : অদ্য বাদ এশা আল-খাফজী প্রবাসী বাঙ্গালীদের উদ্যোগে উক্ত ক্লাবে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন’ আল-খাফজী শাখার সভাপতি তোফাযযল হোসেন (কুমিল্লা)-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় প্রধান আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’ মদীনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সেক্রেটারী মুকাররম বিন মুহসিন। অনুষ্ঠানে জনাব দাঊদ আলী (নোয়াখালী), বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুর রাযযাক, আব্দুর রহমান (ফেনী) সহ শতাধিক বাঙ্গালী উপস্থিত ছিলেন।

দাম্মাম, সঊদী আরব ২৮শে মার্চ শুক্রবার : অদ্য বাদ মাগরিব ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ দাম্মাম শাখার উদ্যোগে শাখার সহ-সভাপতি যহীরুদ্দীনের বাসভবনের হলরুমে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। শাখা সভাপতি জনাব আব্দুল খালেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’ মদীনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সেক্রেটারী মুকাররম বিন মুহসিন। বৈঠকে শাখার সকল সদস্য সহ অন্যান্য কর্মী ও সুধীগণ উপস্থিত ছিলেন। শাখার সেক্রেটারী জনাব যহীর খানের পরিচালনায় বক্তাগণ বিভিন্ন বিষয়ে আলোকপাত করেন এবং প্রশ্নোত্তরের মাধ্যমে সংগঠনের বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করা হয়।

দাল্লাহ, দাম্মাম, সঊদী আরব ৩০শে এপ্রিল বুধবার : অদ্য বাদ এশা ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ দাম্মাম যেলার দাল্লাহ শাখার উদ্যোগে মাসিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। দাম্মাম শাখা সভাপতি আব্দুল খালেক-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় আলোচকগণ অন্ধকারাচ্ছন্ন সমাজ থেকে শিরক-বিদ‘আতের মূলোৎপাটনের লক্ষ্যে তাওহীদের অমীয় বাণী প্রত্যেকের পরিবার ও সমাজে প্রচারের উপর গুরুত্বারোপ করেন। এছাড়া সভায় সমাজকে তাওহীদের পতাকাতলে ঐক্যবদ্ধ করার জন্য জান ও মালের কুরবানীর প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্বারোপ করা হয়। সভায় দাম্মাম শাখার অর্থ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল-মামূন  (বরগুণা)‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর রাজশাহীস্থ কেন্দ্রীয় মারকাযে সদ্য সমাপ্ত ২৪তম বার্ষিক তাবলীগী ইজতেমা ২০১৪-তে অংশগ্রহণের অভূতপূর্ব অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন। তিনি সবাইকে আগামীতে তাবলীগী ইজতেমায় অংশগ্রহণ ও ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় মারকায সফরের আহবান জানান। সভায় দাল্লাহ ও দাম্মাম শাখার দায়িত্বশীল, কর্মী ও সুধীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

যুবসংঘ

বার্ষিক কর্মী সম্মেলন ২০১৪

গত ১১ই এপ্রিল শুক্রবার সকাল ৮-টায় ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর উদ্যোগে আল- মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফী নওদাপাড়া, রাজশাহীর প্রস্তাবিত দারুল হাদীছ বিশ্ববিদ্যালয় (প্রাঃ) জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে ‘কর্মী সম্মেলন ২০১৪’ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সম্মেলনে স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ইমামুদ্দীন বিন আব্দুল বাছীর। ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি মুযাফফর বিন মুহসিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সম্মেলনে প্রধান অতিথির ভাষণে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ডঃ মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব উপস্থিত নেতা-কর্মী ও সুধীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ৪ টি গুণ কারো মাঝে একত্রিত না হলে, তার দ্বারা সমাজে কোন পরিবর্তন আসতে পারে না (১) নিরঙ্কুশ তাওহীদের বিশ্বাস (২) সুন্নাতের পাবন্দ হওয়া (৩) সর্বদা জিহাদী জাযবা থাকা এবং (৪) আল্লাহর প্রতি বিনীত হওয়া। তিনি বলেন, আদর্শ যুবশক্তিই সমাজ পরিবর্তনের মূল নিয়ামক। তারা দেশ ও জাতির মেরুদন্ড। অথচ সেই যুবশক্তিকে দেশের শত্রুরা আল্লাহর পথ থেকে সরিয়ে ভুল পথে পরিচালিত করছে। ইসলামের অপব্যাখ্যা করে তারা মুসলমানদের কাফের ফৎওয়া দিচ্ছে ও তাদের রক্ত হালাল গণ্য করছে। এভাবে তারা ইসলামকেই বিতর্কিত করছে। অতএব এ ব্যাপারে ‘যুবসংঘ’-এর প্রত্যেক কর্মীকে রাসূল (ছাঃ)-এর একনিষ্ঠ অনুসারী হয়ে এসব বিভ্রান্ত তরুণদেরকে প্রকৃত ইসলামের দিকে ফিরিয়ে আনার সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালাতে হবে।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সঊদী আরবের দাম্মাম ইসলামিক সেন্টারের শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ বিভাগের সাবেক পরিচালক শায়খ জাফর আব্দুল্লাহ ফায়েয (মালদ্বীপ)। তিনি তাঁর বক্তব্যের প্রারম্ভে এ সম্মেলনে দাওয়াত প্রদান করার জন্য সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে ধন্যবাদ জানান। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, নবী-রাসূলগণের দাওয়াতের মূল ভিত্তি ছিল তাওহীদ বা আল্লাহর একত্ব প্রতিষ্ঠা। শত যুলুম-নির্যাতনের মুখেও তারা এ দাওয়াত থেকে সামান্যতম পিছপা হননি। তিনি যুবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমাদের যুবকদেরকে দ্বীনের বিশুদ্ধ জ্ঞানে আলোকিত হতে হবে। এজন্য তাদেরকে যাবতীয় পাপ ও অশ্লীলতা থেকে বিরত থাকতে হবে। তিনি উপস্থিত সকলকে দ্বীনের পথে দৃঢ় থাকার আহবান জানান। পরিশেষে তিনি বলেন, কাল ক্বিয়ামতের দিন যেন আমরা আজকের দিনের ন্যায় জান্নাতে একত্রিত হ’তে পারি। আল্লাহ আমাদেরকে সেই তাওফীক দান করুন- আমীন! সম্মানিত বিশেষ অতিথির আরবীতে প্রদত্ত বক্তৃতা অনুবাদ করেন মাওলানা আমানুল্লাহ বিন ইসমাঈল।

সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য পেশ করেন ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক নূরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক ও মাসিক আত-তাহরীকের সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন, দফতর ও যুববিষয়ক সম্পাদক ও ‘যুবসংঘ’-এর সাবেক সভাপতি অধ্যাপক আমীনুল ইসলাম, ‘যুবসংঘ’-এর সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক শেখ মুহাম্মাদ রফীকুল ইসলাম, সহ-সভাপতি অধ্যাপক আকবার হোসাইন, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জালালুদ্দীন, ‘সোনামণি’-এর কেন্দ্রীয় পরিচালক আব্দুল হালীম বিন ইলিয়াস, আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফী, নওদাপাড়ার মুহাদ্দিছ মাওলানা আব্দুর রাযযাক বিন ইউসুফ, ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাধারণ সম্পাদক তাসলীম সরকার, সাতক্ষীরা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা আব্দুল মান্নান, খুলনা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা জাহাঙ্গীর আলম,  ঢাকা যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাবেক সভাপতি মাওলানা আমানুল্লাহ বিন ইসমাঈল, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ‘যুবসংঘ’-এর সভাপতি মিছবাহুল ইসলাম, কুমিল্লা যেলা ‘যুবসংঘ’-এর সভাপতি জামীলুর রহমান, বগুড়া যেলা ‘যুবসংঘ’-এর সভাপতি আব্দুর রাযযাক, জয়পুরহাট যেলা ‘যুবসংঘ’-এর সভাপতি আবুল কালাম আযাদ প্রমুখ। উক্ত সম্মেলনে জাগরণী পেশ করেন আল-হেরা শিল্পী গোষ্ঠীর প্রধান মুহাম্মাদ শফীকুল ইসলাম, আব্দুল্লাহ আল-মা‘রূফ ও আব্দুল লতীফ। অনুষ্ঠানে সঞ্চালক ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি নূরুল ইসলাম। উক্ত সম্মেলনে সরকারের নিকট ১১ দফা দাবী পেশ করা হয়।

আসাম জমঈয়তে আহলেহাদীছ-এর কোষাধ্যক্ষ-এর আগমন : মুহতারাম আমীরে জামা‘আতকে তাঁদের প্রাদেশিক সম্মেলনে দাওয়াত প্রদানের চিঠি নিয়ে এদিন আগমন করেন আসাম জমঈয়তে আহলেহাদীছ-এর কোষাধ্যক্ষ মাওলানা মীযানুর রহমান। যুবসমাবেশে তিনি উপস্থিত থাকতে পারেননি। তবে তার পূর্বে মারকাযী জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত ‘আন্দোলন’ ও যুবসংঘের যৌথ সম্মেলনে প্রদত্ত সংক্ষিপ্ত ভাষণে তিনি বলেন, আপনাদের এই সুন্দর সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা দেখে আমি অভিভূত হয়েছি। আমাদের দেশে এত সুন্দর ও স্বাধীন পরিবেশ নেই। এখানকার অভিজ্ঞতা আমি স্বদেশে কাজে লাগানোর চেষ্টা করব ইনশাআল্লাহ। তিনি সবাইকে তাঁর প্রাদেশিক সংগঠনের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানান।

চাঁপাই নবাবগঞ্জ ২রা মে শুক্রবার : অদ্য সকাল ৯-টায় ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ চাঁপাই নবাবগঞ্জ-দক্ষিণ সাংগঠনিক যেলার উদ্যোগে বিশ্বনাথপুর (কানসাট) আহলেহাদীছ জামে মসজিদে এক যুব সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। যেলা সভাপতি মুহাম্মাদ আরীফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত যুব সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি নূরুল ইসলাম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যেলা ‘যুবসংঘ’-এর সহ-সভাপতি মুহাম্মাদ শরীফুল ইসলাম, তাবলীগ সম্পাদক ইয়াসীন আলী প্রমুখ। যেলা দায়িত্বশীলবৃন্দ সহ বিপুলসংখ্যক কর্মী সমাবেশে উপস্থিত ছিল। উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি উক্ত মসজিদে জুম‘আর খুৎবা প্রদান করেন এবং বাদ আছর আববাস বাজারে অবস্থিত কানসাট এলাকা কার্যালয় ও ইসলামী পাঠাগার পরিদর্শন করেন এবং আনুষ্ঠানিকভাবে তা উদ্বোধন করেন। এখানে মাসিক ‘আত-তাহরীক’ সহ ‘হাদীছ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ’ প্রকাশিত গ্রন্থসমূহ পাওয়া যায়।

‘আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ দিনাজপুর পলিটেকটিক শাখা গঠন : বিরল বায়তুন নূর আহলেহাদীছ জামে মসজিদে জুম‘আর ছালাত শেষে দিনাজপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে আগত ছাত্রদের সাথে সংক্ষিপ্ত বৈঠকে বসেন যেলা প্রশিক্ষণে আগত ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। এ সময়ে তারা ছাত্রদের সংগঠন বিষয়ক বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। অতঃপর উপস্থিত ছাত্রদের মধ্য থেকে মুহাম্মাদ বেলায়াত হোসাইনকে আহবায়ক এবং মুহাম্মাদ সোহেল রানা ও মোস্তাক্বীমকে যুগ্ম আহবায়ক করে ‘আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ দিনাজপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শাখা আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়।

‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর কেন্দ্রীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফী, নওদাপাড়া, রাজশাহী থেকে ২০১৪ সালের দাখিল পরীক্ষায় মোট ২৮ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। এদের মধ্যে ৪ জন জিপিএ ৫ (গোল্ডেন এ+) সহ ২৪ জন ‘এ+’ এবং ৭ জন ‘এ’ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে। একজন অকৃতকার্য হয়েছে। সংগঠন কর্তৃক পরিচালিত মহিলা সালাফিইয়াহ মাদ্রাসা, নওদাপাড়া, রাজশাহী থেকে প্রথমবারের মত ৯ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে ৫ জন ‘এ+’, ৩ জন ‘এ’ এবং ১ জন্য ‘ডি’ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে। এছাড়া দারুলহাদীছ আহমাদিয়া সালাফিইয়াহ, বাঁকাল, সাতক্ষীরায়  ২৫ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৩ জন গোল্ডেন সহ ১৫ জন ‘এ+’ এবং বাকি ১০ জন ‘এ’ গ্রেড পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে।

‘হাদীছ ফাউন্ডেশন’ ভবন অবশেষে অবৈধ দখলমুক্ত

দীর্ঘ প্রায় এক যুগ ধরে কুচক্রীদের অবৈধ দখলে থাকা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মুখবর্তী কাজলাস্থ ‘হাদীছ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ’-এর ৫তলা ভবনটি দীর্ঘ আইনী প্রক্রিয়ার পর উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। ফালিল্লা-হিল হাম্দ। গত ৭ই মে রাত্রি ১০ ঘটিকায় স্থানীয় কাউন্সিলর ও পুলিশ প্রশাসনের উপস্থিতিতে হাদীছ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ-এর সম্মানিত সচিব অধ্যাপক আব্দুল লতীফের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল ভবনটির দখল বুঝে নেন।

উল্লেখ্য, ভবনটি অবৈধ দখলদারদের হাতে চলে যাওয়ার পর থেকে ‘হাদীছ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ’-এর সার্বিক কর্মকান্ড অস্থায়ীভাবে আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফী, নওদাপাড়াতে পরিচালিত হয়ে আসছিল। দীর্ঘদিন পরে হলেও শেষ পর্যন্ত অবৈধ দখল থেকে ভবনটি মুক্ত হওয়ায় আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করেন ফাউন্ডেশনেব-এর প্রতিষ্ঠাতা ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব। এর মাধ্যমে ‘হাফাবা’-এর কার্যক্রম আরো সুচারু রূপে পরিচালিত ও সম্প্রসারিত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।