কবিতা

 

ধর্মের হাল

মুহাম্মাদ শরীফুল ইসলাম

বাহাদুরপুর, পাংশা, রাজবাড়ী।

ধর্মকর্ম ছেড়ে এখন

সবাই ধান্ধাবাজ,

নীতিবাক্য সবাই বলে

করে না কেউ কাজ।

চিন্তা সবার অর্থের ভিতর

কিসের এই ইসলাম?

অর্থ পেলে নষ্ট করবে

ছহীহ পাক কালাম।

অহি-র বিধান মিথ্যা করে

প্রচার করে ভাই,

ব্যবসা যেন টিকে থাকে

থাকে সে চেষ্টায়।

এক এক জন এক হাদীছ বলে

করছে ব্যবসা সমান,

তাই তো বিশ্বের মুসলিম জাতি

হচ্ছে অপমান।

ভন্ডপীরের কান্ড দারুণ

দেখে মুসলমান,

যাচ্ছে সবাই ভ্রান্ত পথে

দিন-রাত্রি সমান।

বিশ্বাস কারো নেই তো এখন

কোনটা আসল দল?

নির্ণয় করতে পারছে না কেউ

আসল আর নকল।

কুরআন-হাদীছ ঠিকই আছে

কদর তাহার নেই,

ইসলাম এখন পড়ে আছে

বেহাল অবস্থায়।

গুরু-শিষ্য

নাছরুল্লাহ, কাঠিগ্রাম, কোটালীপাড়া, গোপালগঞ্জ।

মানুষগুলো অন্ধ বোকা

পীর-ফকীরের ভেলকিতে,

কিসের পরশ আছে বল

গাঁজার তামাক কলকিতে।

উন্মাদনায় পাগলপরা

ঝটকা ব্যান্ড সংগীতে,

খটকা লাগে দেখে ওদের

আউলা কেশী ভঙ্গিতে।

সুশীল সমাজ যাদের দ্বারা

গড়তো নতুন বিশ্ব,

আজকে তারা নেশায় মাতাল

কেউবা গুরু-শিষ্য।

যুবসমাজ ধ্বংস আবার

নষ্ট পরিবেশ,

দিচ্ছে কারা ওদের হাতে

নেশার এ পায়েশ?

স্বপ্ন মায়ের স্বপ্ন বাবার

সোনার ছেলে হবে,

জ্ঞানী-গুণীর মাঝে আমার

ছেলে বেঁচে রবে।

করবে কে মা’র স্বপ্ন পূরণ

বাবার অহংকার?

আমার ছেলের মত নেশা যেন

কেউ করে না আর!

শবেকদর

আতিয়ার রহমান, মাদরা, সাতক্ষীরা।

হাযার মাসের শ্রেষ্ঠ যে রাত

তার পরিচয় শবেকদর,

রামাযানের ঐ শেষ দশকের

বেজোড় রাতে খোঁজরে তার।

অন্য নবীর উম্মতেরা

পাইলো হায়াত বহু দিন,

পাইলো তারা অধিক সুযোগ

মানতে রবের সঠিক দ্বীন।

দোস্ত আল্লাহর শ্রেষ্ঠ নবী (ছাঃ)

তাঁর যত সব উম্মতী,

কম হায়াতে করবে নেকী

পুরবে তাদের ক্ষয়-ক্ষতি।

তাই রহমান দান করিলেন

শবেকদরের বেজোড় রাত,

পুরবে নেকির পশরা শত

যতই থাকুক কম হায়াত।

হেরা গুহার ঐ সে রাতে

হইলো নাযিল পাক কুরআন,

মুহাম্মাদের (ছাঃ) বক্ষ মাঝে

নামলো অশেষ আল্লাহর দান।

কদর রাতে বান্দা আল্লাহর

করবে যে তাঁর বন্দেগী,

পুরবে তাহার মনবাসনা

ধন্য হবে যিন্দেগী।

জিন্দেগীর ঐ বন্দেগীটা

একটি রাতে হয় পুরা

এমন সুযোগ পাগল বিনে

করে না কেউ হাতছাড়া।

ছাড়বো নাক ভর রজনী

করবো যিকির প্রাণ ভরে,

থাকলে খুশী পাক পরোয়ার

তার বেশী তুই চাস কিরে?

কেমন মুসলমান?

ছুফিয়া বিনতে আব্দুল আযীয

আমদাইর, কালিয়াকৈর, গাযীপুর।

তুমি কেমন মুসলমান?

পড়েছ কালেমা এনেছ ঈমান

একটি মানলে চারটি ছাড়লে

পড়ে দেখলে না কুরআন।

তুমি কেমন মুসলমান?

পড় না ছালাত, রাখ না ছিয়াম

রামাযানে কভু কর না কিয়াম।

বিত্তশালীর হজ্জ-যাকাত দেয়া

আল্লাহরই ফরমান,

সেটাও সময় মত করলে না পালন।

তুমি কেমন মুসলমান?

হারাম ছেড়ে হালাল খেয়ে,

করলে না জীবন-যাপন

আল্লাহর নির্দেশ অমান্য করে

হইলে নাফরমান,

তুমি কেমন মুসলমান?