কবিতা

কান্ডারী ডাকে

আশরাফুল হক পলাশ
বাহইল, নারায়ণপুর, নওগাঁ।


আকাশে হঠাৎ মেঘ জমেছে বিজলী করছে খেলা
ঘন বর্ষা পথ কাদাময় গৃহে ফেরো এই বেলা।
আঁধারে ত্বরা ঘনাবে রাত্রি হে পথিক শোন কথা
কান্ডারী ডাকে খেয়া পারে কর না অবহেলা।
খেয়া পারাপার বন্ধ হবে দুর্যোগ তমাসায়
মরণ দশায় নিপতিত? তবে আয়রে চলে আয়!
কান্ডারী ডাকে সত্য খেয়ায় দাও পাড়ি দাও ভাই
কঠিন আরো পুলছিরাত পার হ’তে হবে তাই।
নিঃসীম আঁধার দিশাহীন নিচে তার হাবিয়া
মিথ্যা ছাড় সত্য আঁকড়ে ধর যুগপৎ ভাবিয়া।
পথভোলারা পথ খুঁজে ফেরে ছিরাতে মুস্তাকীম
তোমার জন্য মুক্ত রয়েছে ভাবো কেন মুসলিম?
কান্ডারী ডাকে এসো ভাই-বোন ইসলামী খেয়াযানে,
দাও সবে পাড়ি পৌঁছে যাবে ফেরদাউস মাকানে।




আমি অপরাধী

মুহাম্মাদ সাইফুল ইসলাম
চতরা, পীরগঞ্জ, রংপুর।


অপরাধী বলে হে আল্লাহ
ভুলে যেও না আমায়?
নিজের দোষে দোষী হয়ে
কাঁদি আমি নিরালায়।
পরীক্ষারই জন্য আল্লাহ
পাঠালেন এই দুনিয়ায়
দুনিয়ার মোহে পড়ে
আমি ভুলে গেছি তোমায়।
অন্ধকার কবরে যেদিন
থাকবে না কোন বাতি
মুমিন হ’লে পাব সে দিন
তোমার নূরের জ্যোতি।
জাহান্নাম হ’তে মুক্তি দিও
করিও আমায় জান্নাতী
এই প্রার্থনা তোমার তরে
হে প্রভু আমি যে অপরাধী!


বিশ্বটাকে সাজাই

ইয়াসীন
গোভীপুর, মেহেরপুর।


নবীন প্রাণের নবীন ছোঁয়ায়
দূর কর সব অন্ধকার ,
ভুলিয়ে দাও মিলিয়ে দাও
আর্ত-দুঃখীর হাহাকার।
শক্ত হাতে বজ্র মাথে
এগিয়ে যাও সতেজ করে ঈমান ,
আমরা স্বাধীন আমরা মুমিন
আমরা হ’লাম নবীন প্রাণ।
কেমন করে বদ লোকেরা
ভুলাবে মোদের অনিষ্টতে?
আমরা যদি সুদৃঢ় হই
ভাল কাজে ঐক্যমতে।
এসো ভাই সবাই মিলে
ঐক্য গড়ি আগে ,
নতুন করে ঢেলে সাজাই
মোদের এই বিশ্বটাকে।
যাবি যদি দেরী কেন
এখনি চল মিলাই হাত ,
অনিয়ম সব বদলে ফেলি
দেখাই মোদের তিলেসমাত।
সাহস নিয়ে বুদ্ধি দিয়ে
যেভাবেই হোক যুদ্ধে নামি,
মনে রাখিস ফরয এ কাজ
দামি এযে সবচেয়ে দামি।


আহবান

মুহাম্মাদ আরমান বিন মকবু
পঞ্চসার, মুক্তারপুর, মুন্সিগঞ্জ।


আমি নই শী‘আ-কাদিয়ানী নই মাযহাবী
যা আছে কুরআন-হাদীছে মানি আমি সবি।
কাদরিয়া-চিশতিয়া আমার পরিচয় নয়, নয় তাবলীগী
শিরক মুক্তভাবে আমি করি কেবল আল্লাহ্র বন্দেগী।
আমার পরিচয় শুধু মুসলিম সমুন্নত রেখে চলি ঈমান
চলি সে পথে যা দেখিয়েছেন রাসূল, এনেছে কুরআন।
চিনি না খানকা-মাযার যাই না কভু পীরের দরবার
শুনি শুধু রাসূলের বাণী বলি শুধু আল্লাহু আকবার।
হাযার গোটার তাসবীহ হাতে সিজদার দাগ কপালে
সুন্নাত মত না হ’লে লাভ হবে না কোন আমলে।
স্বাস্থ্য-চেহারা, অর্থ-সম্পদ বিনাশ হোক সর্বস্ব
সব গিয়েও নিরাপদ থাক ঈমান ও আদর্শ।
বাঁচার জন্য খাওয়া, খাওয়ার জন্য বাঁচা নয়
দুনিয়ার মোহে পড়ে আখিরাতে যেন না হারায়।
শিরকের কালিমা যেন না লাগে মোদের চেতনায়
সুরক্ষিত থাকে যেন তা এ জীবনে সর্বদাই।
ব্যক্তিপূজা দলাদলী ফের্কাবন্দী সবই বাদ
ভিন্নমত ছেড়ে এক হয়ে বিশ্বটাকে করি আবাদ।