চিকিৎসা জগৎ

হেল্থ টিপ্স

১. জন্ডিসের চিকিৎসা : (ক) চেলিডোনিয়াম (হোমিও) ২০০ দৈনিক রাতে শোওয়ার সময় ১ ডোজ। (খ) কেলি মিউর (বায়ো) ৬x দু’টি করে বড়ি সকালে এক কাপ গরম পানিসহ। (গ) ন্যাট্রাম সাল্ফ (বায়ো)  ৬x দু’টি করে বড়ি বিকালে এক কাপ গরম পানিসহ।

এক সপ্তাহ খেলেই ইনশাআল্লাহ উপকার বুঝতে পারবেন।

২. গ্যাস্ট্রিকের জন্য : সকালে খালি পেটে নিয়মিত চাউল-পানি খান। অতঃপর নাশতা বা দুপুরে ও রাতে খাওয়ার আগে পূর্ণ এক গ্লাস পানি পেট ভরে পান করুন। ইনশাআল্লাহ গ্যাসের সমস্যা থেকে মুক্ত থাকবেন।

৩. হাঁপানী ও শ্বাসকষ্টের জন্য : দিনে ও রাতে প্রতিদিন ৩০ গ্লাস পানি পান করুন। পেট পানি থেকে খালি হ’তে দিবেন না। চা, কফি বা গরম পানি এবং ফ্রিজের ঠান্ডা পানি নিষিদ্ধ। অন্ততঃ দু’সপ্তাহ অভ্যাস করুন। ইনশাআল্লাহ ফল পাবেন।

৪. ডায়রিয়ার জন্য : (ক) কাঁচ কলা কুচি করে কেটে থেতো করে রস বের করে পানি সহ সামান্য চিনি ও লবণ দিয়ে এক গ্লাস খেয়ে নিন। অতঃপর প্রতিবার টয়লেট থেকে ফিরে আধা গ্লাস করে খান। ইনশাআল্লাহ ডায়রিয়া বন্ধ হয়ে যাবে।

(খ) ফাইভ ফস অর্থাৎ কেলি ফস, ক্যালকেরিয়া, ফেরাম, ম্যাগ ও ন্যাট্রাম ফস ৬x দু’টি করে বড়ি একসাথে এক কাপ গরম পানিসহ এক ঘণ্টা পরপর খান। ইনশাআল্লাহ সাথে সাথে ফল পাবেন।

৫. আমাশয়-এর জন্য : কেলি মিউর ৬x দু’টি করে বড়ি একসাথে এক কাপ গরম পানিসহ এক ঘণ্টা পরপর খান। শেষে ক্যালকেরিয়া ফস ৬x দু’টি বড়ি এক কাপ গরম পানি সহ এক বা দু’বার খান।

৬. প্রদাহ বা এলার্জির জন্যও কেলি মিউর ৬x কার্যকর

৭. সুখপ্রসব ও স্বাস্থ্যবান সন্তানের জন্য গর্ভের ৭ম মাস থেকে প্রতি রাতে শোওয়ার সময় ১ ডোজ পালসেটিলা (হোমিও) ২০০ খান। সেই সাথে সকালে কেলি ফস ৬x দু’টি করে বড়ি এক কাপ গরম পানিসহ এবং বিকেলে ক্যালকেরিয়া ফস ৬x দু’টি বড়ি এক কাপ গরম পানি সহ খান। ৪ দিন পরপর দু’দিন করে বিরতি দিন। ইনশাআল্লাহ সিজারের প্রয়োজন হবে না।

সর্বাবস্থায় আল্লাহর উপর ভরসা রাখুন এবং বিসমিল্লাহ ও দো‘আ পাঠের মাধ্যমে ঔষধ খান। আল্লাহ মূল আরোগ্যদাতা (স.স.)

 

 

HTML Comment Box is loading comments...