সংগঠন সংবাদ

আন্দোলন

কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষণ’১৩

‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর উদ্যোগে কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষণ’১৩ গত ১৩-১৪, ২০-২১ ও ২৭-২৮ জুন রোজ বৃহস্পতি ও শুক্রবার দারুল ইমারত আহলেহাদীছ, নওদাপাড়া, রাজশাহীতে সফলভাবে অনুষ্ঠিত হয়। ১ম দিন বৃহস্পতিবার সকাল ৮-টায় শুরু হয়ে ২য় দিন শুক্রবার জুম‘আ পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে প্রশিক্ষণ অব্যাহত থাকে। ১ম ব্যাচে গত ১৩-১৪ জুন অংশগ্রহণকারী যেলা সমূহ ছিল- নাটোর, সিরাজগঞ্জ, পিরোজপুর, গাযীপুর, যশোর, ঝিনাইদহ, জয়পুরহাট, বগুড়া, ও দিনাজপুর-পশ্চিম। ২য় ব্যাচে ২০-২১ জুন অংশগ্রহণকারী যেলা সমূহ ছিল- খুলনা, বাগেরহাট, কুষ্টিয়া-পূর্ব, কুষ্টিয়া-পশ্চিম, মেহেরপুর, রাজবাড়ী, পাবনা, জামালপুর-উত্তর, জামালপুর-দক্ষিণ, টাঙ্গাইল ও দিনাজপুর-পূর্ব। ৩য় ব্যাচে ২৭-২৮ জুন অংশগ্রহণকারী যেলা সমূহ ছিল-  ঢাকা, নরসিংদী, সাতক্ষীরা, রাজশাহী, চাঁপাই নবাবগঞ্জ, নওগাঁ, গাইবান্ধা-পূর্ব, গাইবান্ধা-পশ্চিম, রংপুর, লালমণিরহাট, নীলফামারী ও কুড়িগ্রাম-দক্ষিণ। সংশি­ষ্ট যেলাসমূহের বাছাইকৃত কেন্দ্রীয় পরিষদ সদস্য, সাধারণ পরিষদ সদস্য ও অগ্রসর প্রাথমিক সদস্যগণ প্রশিক্ষণে যোগদান করেন।

মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রফেসর ডঃ মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত প্রশিক্ষণে পূর্ব নির্ধারিত বিষয় সমূহের উপর প্রশিক্ষণ প্রদান করেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাওলানা নূরুল ইসলাম, সাহিত্য ও পাঠাগার সম্পাদক অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক বাহারুল ইসলাম, প্রচার ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন, দফতর ও যুববিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক আমীনুল ইসলাম, ‘আন্দোলন’-এর মজলিসে শূরা সদস্য ড. মুহাম্মাদ কাবীরুল ইসলাম, নাটোর যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি ড. মুহাম্মাদ আলী, ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় মুবাল্লিগ মুহাম্মাদ শরীফুল ইসলাম, আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফী, নওদাপাড়া, রাজশাহীর অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুর রায্যাক বিন ইউসুফ, মুহাদ্দিছ মাওলানা আব্দুল খালেক সালাফী ও হাফেয লুৎফর রহমান প্রমুখ। প্রশিক্ষণ পরিচালনা করেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষণ সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ সাখাওয়াত হোসাইন। প্রশিক্ষণের আকর্ষণীয় পর্ব ছিল উপস্থিত বক্তৃতা, যা প্রত্যেক ব্যাচেই প্রথম দিন বাদ এশা আমীরে জামা‘আতের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হয়। দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত প্রশিক্ষণের বিষয়গুলিকেই উপস্থিত বক্তৃতার বিষয়বস্ত্ত হিসাবে নির্ধারণ করা হয়। এতে একই বিষয়ের পুনরাবৃত্তির কারণে উক্ত বিষয়টি প্রশিক্ষণার্থীদের যেমন রপ্ত হয়ে যায়, তেমনি যারা বক্তৃতা দিতে অভ্যস্ত নন তাদের মধ্যেও বক্তৃতাদানের স্পৃহা সৃষ্টি হয়। সমাপনী অধিবেশনে জুম‘আর আগ পর্যন্ত মুহতারাম আমীরে জামা‘আত প্রশিক্ষণার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন ও বিদায়ী নছীহত পেশ করেন। অতঃপর প্রশিক্ষণ সম্পাদক সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে প্রশিক্ষণ শিবিরের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

পবিত্র মাহে রামাযান উপলক্ষে র‌্যালী

হাটগাঙ্গোপাড়া, বাগমারা, রাজশাহী ৭ জুলাই রবিবার : অদ্য বাদ আছর ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ ও ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ হাটগাঙ্গোপাড়া এলাকার উদ্যোগে পবিত্র মাহে রামাযান উপলক্ষে এক র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। হাটগাঙ্গোপাড়া বাজার আহলেহাদীছ জামে মসজিদ থেকে শুরু হয়ে বাজারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড় ও রাস্তা প্রদক্ষিণ করে পুনরায় মসজিদে এসে র‌্যালীটি সমাপ্ত হয়। এ সময় সংগঠনের পক্ষ হ’তে জনগণের প্রতি ৬ দফা আহবান সম্বলিত প্রচারপত্র বিতরণ করা হয়। র‌্যালী শেষে হাটগাঙ্গোপাড়া বাজার মসজিদে মাহে রামাযানের গুরুত্ব ও তাৎপর্য সম্পর্কে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাগমারা উপযেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা আহমাদ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি  হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর কেন্দ্রীয় দফতর ও যুববিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক আমীনুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক আব্দুল হালীম বিন ইলিয়াস। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী যেলা ‘আন্দোলন’-এর সাংগঠনিক সম্পাদক মাষ্টার সিরাজুল ইসলাম, রাজশাহী-উত্তর যেলা ‘যুবসংঘ’-এর সহ-সভাপতি ডাঃ মুহাম্মাদ মুহসিন ও হাটগাঙ্গোপাড়া এলাকা ‘যুবসংঘ’-এর সভাপতি মাওলানা যিল­ুর রহমান প্রমুখ।

বগুড়া ৭ জুলাই রবিবার : অদ্য বিকাল ৪.০০ ঘটিকায় ‘সোনামণি’ বগুড়া যেলার উদ্যোগে পবিত্র মাহে রামাযানের পবিত্রতা রক্ষার দাবীতে এক র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। ঐতিহ্যবাহী আলতাফুন্নেসা খেলার মাঠ হ’তে শুরু করে র‌্যালিটি বিশেষ বিশেষ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে শহরের প্রাণকেন্দ্র সাতমাথায় এসে পথসভায় মিলিত হয়। উক্ত পথসভায় বক্তব্য রাখেন, ‘সোনামণি’ বগুড়া যেলার প্রধান উপদেষ্টা ও যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি জনাব আব্দুর রহীম, উপদেষ্টা ও যেলা ‘যুবসংঘে’র সাবেক সভাপতি জনাব আব্দুস সালাম এবং সোনামণি বগুড়া যেলার পরিচালক আব্দুস সালাম বিন আব্দুর রহীম প্রমুখ। র‌্যালিতে যেলার দশটি মাদরাসার পাঁচ শতাধিক সোনামণি অংশগ্রহণ করে। এ সময় যেলা ‘আন্দোলন’ ও ‘যুবসংঘ’-এর নেতৃবৃন্দ, সংশি­ষ্ট মাদরাসার শিক্ষকবৃন্দ এবং বিপুল সংখ্যক সুধীও যোগদান করেন। র‌্যালিতে মাহে রামাযানের পবিত্রতা রক্ষা করুন, দিনের বেলা হোটেল-রেস্তোঁরা বন্ধ রাখুন, খাদ্যে ভেজাল দেওয়া থেকে বিরত থাকুন ও দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখুন ইত্যাদি দাবী সম্বলিত ফেস্টুন শোভা পায়। বিশাল এই র‌্যালিটি শহরের সর্বস্তরের জনগণের দৃষ্টি আকর্ষণ করে।

তাবলীগী সভা

জয়রামপুর, দামুড়হুদা, চুয়াডাঙ্গা ২৯ জুন শনিবার : অদ্য বাদ মাগরিব চুয়াডাঙ্গা যেলার দামুড়হুদা থানাধীন জয়রামপুর ডাক্তার পাড়াস্থ ফোরকানিয়া মাদরাসায় এক তাবলীগী সভা অনুষ্ঠিত হয়। জনাব এ.কে.এম. গোলাম সাকলাইন-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত তাবলীগী সভায় কেন্দ্রীয় মেহমান হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘আন্দোলন’-এর মজলিসে শূরা সদস্য ও মাসিক আত-তাহরীক-এর সহকারী সম্পাদক ড. মুহাম্মাদ কাবীরুল ইসলাম ও নাটোর যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি অধ্যাপক ড. মুহাম্মাদ আলী। অনুষ্ঠানে নতুন আহলেহাদীছগণ সহ স্থানীয় বহু লোকজন উপস্থিত ছিলেন। প্রতিকূল আবহাওয়ার মধ্যেও বাদ মাগরিব থেকে রাত ১০-টা পর্যন্ত অনুষ্ঠান চলে।

আব্দুর রাযযাক বিন ইউসুফ ও আমানুল্লাহ বিন ইসমাঈলের মালদ্বীপ সফর

গত ৫ ও ৬ জুলাই ২০১৩ রোজ শুক্র ও শনিবার মালদ্বীপের রাজধানী মালের ‘ইস্কিন্দার’ ও ‘হিরিয়া’ স্কুল অডিটোরিয়ামে প্রবাসী বাংলাদেশী আহলেহাদীছদের উদ্যোগে দু’টি ইসলামী সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। উক্ত সমাবেশে প্রধান আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আল-মারকাযুল ইসলামী আস-সালাফীর অধ্যক্ষ ও দারুল ইফতা ‘হাদীছ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ’-এর সদস্য মাওলানা আব্দুর রাযযাক বিন ইউসুফ। বিশেষ বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সাবেক ঢাকা যেলা সভাপতি মাওলানা আমানুল্লাহ বিন ইসমাঈল। উভয় সম্মেলনে সহস্রাধিক প্রবাসী বাঙালী স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন। দু’দিনের সফরে তাঁরা মালদ্বীপের শিক্ষামন্ত্রী জনাব শাহীম আলী সাঈদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন এবং মুহতারাম আমীরে জামা‘আতের ছালাতুর রাসূল (ছাঃ) এবং ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন কি ও কেন?’ গ্রন্থদ্বয়ের ইংরেজী অনুবাদ হাদিয়া স্বরূপ প্রদান করেন। ৭ই জুলাই রাত ৯টায় তাঁরা ঢাকা ফিরে আসেন। অনুষ্ঠানের আয়োজক কমিটির অন্যতম ফয়ছাল আহমাদ বলেন, সম্মেলন আশাতীতভাবে সফল হয়েছে এবং প্রবাসী বাঙ্গালীদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। সম্মেলন শেষে শরীফ আহমাদ (নরসিংদী)-কে সভাপতি এবং কামরুল হাসান বিপ্লব (ফরিদপুর)-কে সাধারণ সম্পাদক করে ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন মালদ্বীপ শাখা’ গঠন করা হয়।

যুবসংঘ

জীবনের প্রকৃত লক্ষ্য অর্জনে ব্রতী হও

-মুহতারাম আমীরে জামা‘আত

 

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ১৫ জুলাই : অদ্য ৫ই রামাযান সোমবার বাদ আছর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ায় ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা কর্তৃক আয়োজিত আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে সভাপতির ভাষণে আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মুহতারাম আমীরে জামা‘আত ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের সিনিয়র প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব ছাত্রদের প্রতি উপরোক্ত আহবান জানান। তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় হ’ল জ্ঞানের বিকাশ কেন্দ্র ও মেধার লালন ক্ষেত্র। কিন্তু মানুষের জ্ঞান চূড়ান্ত সত্যের মানদন্ড নয়। আর সেকারণ মানব জাতির হেদায়াতের জন্য যুগে যুগে নবীগণের মাধ্যমে আল্লাহ অহি-র বিধান সমূহ প্রেরণ করেছেন। যারা সেই বিধান সমূহ কবুল করেছে ও তার কাছে আত্মসমর্পণ করেছে, তারাই মুসলিম। আর যারা তা প্রত্যাখ্যান করেছে, তারা কাফির। সত্য ও মিথ্যার এ দ্বন্দ্ব চিরন্তন। বিশ্ববিদ্যালয় অঙ্গন তার ব্যতিক্রম নয়। এ অঙ্গনে ‘আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ কি চায়, কেন চায় ও কিভাবে চায়, তা সবারই জানা আবশ্যক। তারা চায় ছাত্রদের সার্বিক জীবন পবিত্র কুরআন ও ছহীহ হাদীছ অনুযায়ী গড়ে তুলতে। পরকালীন মুক্তির জন্যই তারা সেটা চায় এবং রাসূলুল্লাহ (ছাঃ)-এর তরীকা অনুযায়ী দাওয়াতের মাধ্যমে তারা সেটা চায়। এর বিকল্প অন্য কোন তরীকা ইসলামে নেই। বর্তমান যুগে ক্ষমতা দখলের উদ্দেশ্য নিয়ে যেসব দল ও সংগঠন বিশ্ববিদ্যালয় অঙ্গনে কাজ করছে, তাদের সাথে আহলেহাদীছ যুবসংঘের কোন সম্পর্ক নেই। তিনি বলেন, রাজনীতি সচেতনতা ভাল। কিন্তু অতি রাজনৈতিকতা ভাল নয়। তিনি বলেন, নিয়ন্ত্রিত জীবনই সফল জীবন, আল্লাহভীতি ব্যতীত যা অর্জন করা সম্ভব নয়। তিনি বলেন, হে প্রিয় ছাত্রগণ! তোমরা লোকদের ক্ষমতার সিঁড়ি হিসাবে ব্যবহৃত হয়ো না। তোমরা আমতলা ছেড়ে লাইব্রেরীমুখী হও। জীবনের প্রকৃত লক্ষ্য অর্জনে ব্রতী হও! তোমরা ছোট-বড় সকল পাপ বর্জন কর ও কবীরা গোনাহ হতে তওবা কর। তোমাদের জীবন সুন্দর ও সুখময় হবে ইনশাআল্ল­াহ।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রফেসর ইমেরিটাস এবং মুহতারাম আমীরে জামা‘আতের ডক্টরেট থিসিসের মাননীয় সুপারভাইজর প্রফেসর ড. এ.কে.এম ইয়াকুব আলী। আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি মুযাফফর বিন মুহসিন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর আহমাদ যহীরুল ইসলাম, আইন ও বিচার বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মুহাম্মাদ আব্দুল আলীম, ক্রপ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এ.কে.এম আব্দুল বারী, সহকারী পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (সাধারণ) মুহাম্মাদ মুস্তাফীযুর রহমান, ‘যুবসংঘ’-এর কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি নূরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক আহমাদ আব্দুল্লাহ ছাকিব। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ‘যুবসংঘ’ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মেছবাহুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ সহ অন্যান্য দায়িত্বশীলবৃন্দ। হরতাল থাকা সত্ত্বেও অনুষ্ঠানে আশাতিরিক্ত ছাত্র ও সুধী সমাগম ঘটে এবং খুবই সুন্দরভাবে মাহফিল সমাপ্ত হয়। উল্লেখ্য যে, ‘বাংলাদেশ আহলেহাদীছ যুবসংঘ’ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুমোদিত একটি ছাত্র সংগঠনের নাম। যারা ক্যাম্পাসে ছাত্রদের মাঝে আহলেহাদীছ আন্দোলনের দাওয়াতী কাজ করে থাকে এবং বিভিন্ন প্রোগ্রাম করে থাকে। তবে সাংগঠনিক ব্যানারে ক্যাম্পাসে আয়োজিত বড় কোন ছাত্র-শিক্ষক সমাবেশে মুহতারাম আমীরে জামা‘আতের এটাই ছিল প্রথম আগমন। যা সকলের মধ্যে ব্যাপক সাড়া জাগায়। ফালিল্লাহিল হাম্দ

মৃত্যু সংবাদ

‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ সাতক্ষীরা যেলার কলারোয়া উপযেলার চান্দা শাখার সভাপতি আব্দুর রশীদ ঢালী (৬৫) গত ২৮ মে মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩-টার সময় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। ইন্না লিল্লা-হি ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজেঊন। মৃত্যুকালে তিনি ৫ পুত্র, ৪ কন্যা ও বহু আত্মীয়-স্বজন রেখে যান। পরদিন বুধবার বাদ যোহর মাওলানা আমানুল্লাহ বিন ইসমাঈল (পাবনা)-এর ইমামতিতে তার জানাযার ছালাত অনুষ্ঠিত হয় ও পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়। যেলা ‘আন্দোলন’-এর সভাপতি মাওলানা আব্দুল মান্নান, সেক্রেটারী মাওলানা আলতাফ হোসাইন সহ এলাকা ও উপযেলা সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের দায়িত্বশীলগণ জানাযায় উপস্থিত ছিলেন।

[আমরা তাঁর রূহের মাগফিরাত কামনা করছি এবং তাঁর শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। -সম্পাদক]

HTML Comment Box is loading comments...